প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনী কার্যালয়ের নামে প্রবাসীর সম্পত্তি দখল

বরিশাল প্রতিনিধি : পৌর কাউন্সিলর খায়রুল খানের বিরুদ্ধে দলীয় নির্বাচনী কার্যালয়ের নামে এক ইতালী প্রবাসীর সম্পত্তি দখল করে দুটি দোকান ঘর নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রকাশ্যে জোরপূর্বক ঘর উত্তোলনে বাঁধা দেয়ায় প্রবাসীর বৃদ্ধা মাকে গালিগালাজ করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। নিরুপায় হয়ে ওই পরিবারটি নিজেদের সম্পত্তি ফিরে পেতে স্থানীয় সংসদ সদস্য, পৌর মেয়র ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সহযোগিতা কামনা করেছেন। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী পৌর এলাকার টরকী বন্দর এলাকার।

ভূক্তভোগী ওই এলাকার বাসিন্দা বাদশা মিয়ার স্ত্রী বৃদ্ধা সেলিনা বেগম জানান, তার পুত্র গোলাম মোর্শেদ বাবু ইতালী প্রবাসী। পুত্রবধূ ও নাতীদের নিয়ে তিনি বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। নতুন টরকীর চর ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় তাদের নিজস্ব সম্পত্তিতে দোকান ঘর তুলে তা ভাড়া দেয়া হয়। গত মঙ্গলবার পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর খায়রুল খান ও তার ২০/২৫জন সহযোগিরা তাদের দোকান ঘরের সামনের জায়গা দখল করে জোরপূর্বক দোকান ঘর উত্তোলন কাজ শুরু করে। খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘর নির্মানে বাঁধা প্রদান করেন।

এতে কাউন্সিলর খায়রুল খান ও তার সহযোগিরা ক্ষিপ্ত হয়ে দলীয় নির্বাচনী কার্যালয় নির্মানের অজুহাত দেখিয়ে তাকে (সেলিনা বেগম) অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। তিনি (সেলিনা) অভিযোগ করেন, তাদের দোকান ঘর থেকে দুটি দোকান দাবি করেছিলেন কাউন্সিলর খায়রুল খান। সেই সময়ও দোকান নির্মানে খায়রুল বাঁধা প্রদান করলে তারা বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহকে অবহিত করেন। পরবর্তীতে সাংসদ তার নিজস্ব লোক পাঠিয়ে কোন ঝামেলা না করার জন্য কাউন্সিলর খায়রুলকে নির্দেশ দেন।

এ ঘটনার কয়েকদিন পর কাউন্সিলর খায়রুল দুই দোকানের ভাড়াটিয়াদের মারধর করে বের করে দিয়ে দুটি দোকানেই তালা ঝুলিয়ে দেয়। সেই থেকে অদ্যবর্ধি ওই দুটি দোকান ঘর তালাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। এ ব্যাপারে যুবলীগ নেতা ও পৌর কাউন্সিলর খায়রুল খান বলেন, কারও ব্যক্তিগত সম্পত্তি দখল করে নয় স্থানীয় দলীয় নেতাকর্মীরা সরকারী সম্পত্তিতে দলীয় নির্বাচনী কার্যালয় নির্মাণ করছেন। এ ঘটনার সাথে আমি জড়িত নই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ