প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিক্ষার্থীরা টিফিনের পয়সায় করেছে ৫৯টি বৃক্ষ বাগান

মতিনুজ্জামান মিটু: শিক্ষার্থীরা তাদের টিফিনের পয়সার একটি অংশ জমা করে মহানগরসহ দেশের ৫৯ টি বিদ্যালয়ে গড়ে তুলেছে বৃক্ষ বাগান। গ্রীন ক্লাব ও অক্সিজেন ব্যাংক পরিচালনার মাধ্যমে তারা তাদের বিদ্যালয় চত্বর বা সাদে এই বাগান গড়ে তুলেছে। এসব বাগানে লাগানো হয়েছে ফল, ফুল ও সবজিসহ নানা রকমের বৃক্ষ।

একান্ত সাক্ষাতে গ্রীন ক্লাব ও অক্সিজেন ব্যাংকের উদ্ভাবক এবং গ্রীন সেভার্স এর পরিচালক আহসান রনি বলেন, বৈশ্বিক উষ্ণতায় প্রতিনিয়ত ব্যাপকভাবে পরিবেশের ওপর বিরুপ প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। বাস্তব এই পেক্ষাপট বিবেচনায় বেসরকারি সংস্থা গ্রীন সেভার্স এ্যাসোসিয়েশন ২০১১ সাল থেকে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করে পরিবেশ বান্ধব কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে। এ কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহন, অংশীদারিত্ব ও প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তাদের মধ্যে সচেতনতা তৈরী এবং তহবিল গঠন করা হয়। শুরু হয় শিক্ষার্থীদের সংগ্রহকরা তহবিলে তাদের স্ব স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৃক্ষবাগান সৃজনসহ পরিবেশ বান্ধব কার্যক্রম বাস্তবায়নের কাজ। এসময় পরিবেশ বিষয়ক বার্তা সম্বলিত একটি বাক্সের মাধ্যমে তারা মাধ্যমিক স্কুল পর্যায়ে তহবিল গঠনের কার্যক্রম শুরু করে যার নাম দেয়া হয় ‘ অক্সিজেন ব্যাংক’। বর্তমানে ঢাকা মহানগরের ১০০টিসহ দেশের ৩৮০টি বিদ্যালয়ে ৩৪০টি অক্সিজেন ব্যাংক প্রতিষ্ঠা হয়েছে। এর মধ্যে মহানগরে ৩৩টি এবং দেশের ৫টি জেলায় ২৬টি অক্সিজেন ব্যাংক স্থাপন এবং তার অর্থে ৫৯টি বৃক্ষ বাগান সৃজন করা হয়েছে। এ জেলাগুলো হচ্ছে, খুলনা, দিনাজপুর, সিরাজগঞ্জ, জামালপুর ও হবিগঞ্জ। ইতোমধ্যে এই কার্যক্রম সরকারসহ বিভিন্ন মহলের মনোযোগ আকর্ষনে সক্ষম হয়েছে।

এ বিষেয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, অক্সিজেন ব্যাংক একটি আনুমানিক ১০ বর্গফুট ক্ষেত্রফলের কাঁঠের বাক্স। যেটি বিদ্যালয়ের দেয়ালের কোনো দৃশ্যমান স্থানে স্থাপন করা হয়। শিক্ষার্থীরা তাদের টিফিনের পয়সার একটি অংশ এখানে জমাতে পারে এবং প্রতিমাসে জমানো অর্থ দিয়ে ওই বিদ্যালয়ে বৃক্ষ রোপন ও গ্রীন ক্লাব পরিচালনাসহ পরিবেশ সচেতনমূলক নানাবিধ কার্যক্রম যেমন পরিবেশ দিবস উদযাপন, চিত্রাঙ্কন বা বিতর্ক প্রতিযোগিতা আয়োজন করে থাকে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিজে বা পরিবেশ সচেতন কোনো শিক্ষককে ব্যাংকের দায়িত্ব দেয়া হয়। যাকে বলা হয় গ্রীন আম্বাসাডার। যিনি ব্যাংকের চাবি সংরক্ষন করেন এবং মাস শেষে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে ব্যাংক খুলে জমানো অর্থ দিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

২০১৬ সালে অক্সিজেন ব্যাংকের সম্ভাব্যতা বিবেচনায় পরিবেশে অধিদপ্তর ঢাকা মহানগরের ১০০টি বিদ্যালয়ে অক্সিজেন ব্যাংক স্থাপনে আগ্রহী হলে সেভ দ্য চিলড্রেন বাস্তবায়ন সহযোগি হিসেবে যুক্ত হয়। ২০১৭ সালে সেভ দ্য চিলড্রেন পরিবেশ অধিদপ্তরের পৃষ্ঠপোষকতায় গ্রীন সেভার্স এর কারিগরি সহযোগীতায় খুলনা ও দিনাজপুরে অক্সিজেন ব্যাংক স্থাপন করা হয়। এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং একে আরও গতিশীল করা হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ