প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্লাস্টিক দূষণ কমানোর জন্য ৫০ দেশের উদ্যোগ

ইমরুল শাহেদ : জাতিসংঘের এক দীর্ঘতম প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বের ৫০টি দেশ প্লাস্টিক ও প্লাস্টিকজাত পণ্যের দূষণ ও প্লাস্টিকের বিষাক্ত ছোবল মুক্ত হতে পদক্ষেপ নিচ্ছে। গ্যালাপাগোস দ্বীপপুঞ্জ শিগগিরই একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক, শ্রীলঙ্কা নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে খাদ্য পণ্যের ‘ওয়ান টাইম প্যাক’ বানানোর জন্য ব্যবহৃত স্টিরিওফোম; জৈব পদ্ধতিতে পচানো যাবে এমন ব্যাগ ব্যবহারের উপর জোর দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে চীন।

জাতিসংঘের এই প্রতিবেদন লেখক বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, নদী ও সমুদ্রে প্লাস্টিকের প্রবাহ কমাতে অনেক কিছু করা প্রয়োজন। অনেক দেশ প্লাস্টিক বর্জ্য কমাতে ভালো ভালো নীতি নিলেও প্রয়োগের ঘাটতির কারণে তা ব্যর্থ হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেছেন তারা। তবে গণমাধ্যমের ভূমিকার কারণে যুক্তরাজ্যে বিষয়টি উজ্জীবিত হয়েছে। কোনো কোনো উন্নয়নশীল দেশে প্লাস্টিক ব্যাগের কারণে নালা-নর্দমার মুখ বন্ধ হয়ে বন্যার সৃষ্টি করছে। অনেক সময় এসব ব্যাগ খেয়ে ফেলছে পশু-পাখিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্লাস্টিক দূষণ কমানোর নীতি মিশ্র ফলাফলই বয়ে এনেছে। ক্যামেরুনে প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ; প্রতি কেজি প্লাস্টিক বর্জ্য সংগ্রহে দেশটিতে অর্থ দেওয়ারও বিধান আছে; তা সত্ত্বেও সেখানে চোরাপথে প্লাস্টিক ব্যাগ ঢুকছে বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। বেশ কয়েকটি দেশে প্লাস্টিক বিষয়ে বিধিনিষেধ থাকলেও সেসব কার্যকর করার ক্ষেত্রে বড় ধরনের ঘাটতি রয়েছে।
প্রতিবেদনে অ্যাবাকা হেম্প থেকে জেইন পর্যন্ত প্লাস্টিকের পরিবর্তে ব্যবহার করা যায় এমন ৩৫টি জৈব উপকরণের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। তালিকায় আছে খরগোশের পশম, সামুদ্রিক ঘাস ও ছত্রাক দিয়ে তৈরি ফোমের নামও।

দুধের বর্জ্য থেকে ছানার সুতা তৈরি করা প্রতিষ্ঠান কিউমিলচের কথাও প্রতিবেদনে এসেছে; এসেছে আনারসের পাতা থেকে তৈরি প্লাস্টিকের বিকল্প পিনাটেক্সের বিষয়ও। অনেক নীতিনির্ধারক অবশ্য জৈব বিকল্পের সম্ভাবনাকে তুলে ধরার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বনেরও পরামর্শ দিয়েছেন।

তারা বলছেন, গাড়ির বিকল্প জ্বালানি হিসেবে পাম ওয়েলের ব্যবহারের কারণে রেইন ফরেস্টগুলো ধ্বংস করে পাম বাগান গড়ে তোলা হচ্ছে, এভাবে জৈবজ্বালানি বিষয়ে পরিবেশবাদীদের আগের আশাবাদও বিফল হচ্ছে।

জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক প্রধান এরিক সোলহেইম বলেন, প্লাস্টিক দূষণ কমিয়ে আনতে যন্ত্রণাহীন ও লাভজনক বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া যায় বলেও তাদের পর্যালোচনায় উঠে এসেছে।

অন্যদিকে প্লাস্টিক দূষণ থেকে মানুষ, পশুপাখি, পানিপথ এবং সমুদ্রকে বাঁচানোর জন্য গঠিত বৈশ্বিক জোটে সমবেত হয়েছে প্রায় ৭০০ প্রতিষ্ঠান। বিশ্বকে প্লাস্টিক দূষণমুক্ত ও বিষাক্ত ছোবল থেকে রক্ষা করার জন্য ৬০টি দেশ একযোগে কাজ করে যাচ্ছে। বিবিসি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ