প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আমি প্রেম দিতে এসেছিলাম, প্রেম পেতে এসেছিলাম : কাজী নজরুল ইসলাম

আমার বেশ মনে পড়ছে। একদিন আমার জীবনের মহা অনুভূতির কথা। আমার ছেলে মারা গেছে। আমার মন তীব্র পুত্র শোকে যখন ভেঙে পড়ছে; ঠিক সেই দিনই, সেই সময় আমার বাড়িতে হাস্নাহেনা ফুটেছে। আমি প্রাণভরে সেই হাস্নাহেনার গন্ধ উপভোগ করেছিলাম। আমার কাব্য, আমার গান আমার জীবনের সেই অভিজ্ঞতার মধ্য হতে জন্ম নিয়েছে। যদি কোনদিন আপনাদের প্রেমের প্রবল টানে আমাকে আমার একাকিত্বের পরম শূন্য থাকে অসময়ে নামতে হয়, তাহলে সেদিন আমায় মনে করবেন না, আমি সেই নজরুল। সেই নজরুল অনেক দিন আগে মৃত্যুর খিড়কী দুয়ার দিয়ে পালিয়ে গেছে। মনে করবেন পুর্ণত্বের তৃষ্ণা নিয়ে অশান্ত তরুণ এই ধরায় এসেছিল, অপূর্ণতার বেদনায় তারই বিগত আত্মা যেন স্বপ্নে আপনাদের মাঝে কেঁদে গেল।

যদি আর বাঁশী না বাজে, আমি কবি বলে বলছি নে, আমি আপনাদের ভালবাসা পেয়েছিলাম, সেই অধিকারে বলছি, আমায় আপনারা ক্ষমা করবেন। আমায় ভুলে যাবেন। বিশ্বাস করুন, আমি কবি হতে আসি নি। আমি নেতা হতে আসি নি। আমি প্রেম দিতে এসেছিলাম, প্রেম পেতে এসেছিলাম। সে প্রেম পেলাম না বলে আমি এই প্রেমহীন নিরস পৃথিবী হতে নিরব অভিমানে চিরদিনের জন্য বিদায় নিলাম।

যেদিন আমি চলে যাব, সেদিন হয়ত বা বড় বড় সভা হবে। কত প্রশংসা কত কবিতা বেরুবে হয়ত আমার নামে! দেশপ্রেমী, ত্যাগী, বীর, বিদ্রোহী- বিশেষণের পর বিশেষণ, টেবিল ভেঙে ফেলবে থাপ্পর মেরে, বক্তার পর বক্তা! এই অসুন্দরের শ্রদ্ধা নিবেদনের প্রার্থ্য দিনে বন্ধু, তুমি যেন যেও না। যদি পার চুপটি করে বসে আমার অলিখিত জীবনের কোন কথা স্মরণ কোরো। তোমার ঘরের আঙিনায় বা আশেপাশে যদি ঝরা পায়ে পেষা ফুল পাও, সেইটিকে বুকে চেপে বোলো – ‘বন্ধু, আমি তোমায় পেয়েছি’।…’

১৯৪১ সালের ৬ এপ্রিল দেয়া কাজী নজরুল ইসলামের এই অভিভাষণটি আমার খুব প্রিয়। যত পড়ি, তত ভালো লাগে। কাজী সব্যসাচীর কণ্ঠে আবৃত্তি শুনলেও আবেগাপ্লুত যাই। ভাষণটি পড়লে বা শুনলে হাস্নাহেনার গন্ধ পাই, মন খারাপ যায়। ইচ্ছে করে ঝরা পায়ে পেষা ফুল বুকে চেপে বলি, বন্ধু, আমি তোমায় পেয়েছি। শুভ জন্মদিন প্রিয় কবি। আমার বারান্দার হাস্নাহেনা দিয়েই স্মরণ করছি প্রিয় কবিকে।

পরিচিতি: হেড অব নিউজ, এটিএন নিউজ/ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত