প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গজনী অবকাশ কেন্দ্রকে সাজাতে প্রশাসনের উদ্যোগ

হামিম আহসান: শেরপুরের সীমান্তবর্তী গজনী অবকাশ কেন্দ্রকে নতুন রূপে সাজাতে উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এছাড়াও জেলা সম্পর্কে পর্যটকদের অবহিত করতে খোলা হচ্ছে ব্র্যান্ডিং কর্নারও। জেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগে খুশি পর্যটকরা।

ভারতের মেঘালয় রাজ্য ঘেঁষে শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় গারো পাহাড়েই অবস্থান গজনী অবকাশ কেন্দ্রের। পাহাড়ের সৌন্দর্য হাতছানি দেয় পর্যটকদের।

২০১৪ সালে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় গজনী। সম্ভাবনাময় এই পর্যটন কেন্দ্রটিকে এরপর নতুন করে সাজানোর উদ্যোগ নেয় জেলা প্রশাসন।

চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসের শেষে তা সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার কথা জানান তদারকিতে থাকা কর্মকর্তারা।

শেরপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলাম বলেন, পর্যটন কেন্দ্রের নিরাপত্তা জোরদারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে ট্যুরিস্ট পুলিশ চেয়ে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে।

নান্দনিক এই অবকাশ কেন্দ্রের পাশে পর্যটন কর্পোরেশনকে পাঁচ তারা হোটেল নির্মাণে জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেন।

১৯৯৩ সালে শেরপুরের তৎকালীন জেলা প্রশাসক আতাউর রহমান মজুমদারের উদ্যোগে শহর থেকে ৩৪ কিলোমিটার দূরে পাহাড়ি বনাঞ্চলের ২৭০ বিঘা জমিতে গড়ে তোলা হয় পর্যটন কেন্দ্র গজনী।

 সূত্র: ডিবিসি নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত