প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জিতলেন শামীম, পরাজিত আইভী

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জ নগরীর প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়ক ব্যতীত অন্যান্য কয়েকটি সড়কে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য হকাররা বসতে পারবে বলে জেলা প্রশাসন ও সিটি করপোরেশনের এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে। বুধবার রাত দশটায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক।

তিনি জানান, বঙ্গবন্ধু সড়ক ব্যতীত সিরাজউদ্দৌলা সড়ক, নবাব সলিমুল্লাহ সড়ক, চেম্বাররোড, খানপুর হাসপাতাল সম্মূখ সড়কে সাময়িক সময়ের জন্য হকার বসতে পারবে এমনই এক সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল পাচঁটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত হকারদের বেচাকেনা করতে পারবে। আজ জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সিটি করপোরেশনের এক জরুরী বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

পুলিশ সুপার মঈনুল হক আরো জানান, বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়াদার, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়য় ডা: সেলিনা হায়াৎ আইভীর সাথে এক জরুরী বৈঠক করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে সাময়িক সময়ের জন্য হকারদের শীতের কাপড় বেচাকেনার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা: সেলিনা হায়াৎ আইভী সাথে মিটিং করে হকারদের বসার বিষয়টি নিয়ে বিভিন্নভাবে আলোচনা হয়। এসময় মেয়র আইভী সিদ্ধান্ত দেন নগরীরর প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়ক ব্যতীত অন্যসড়কে হকার বসলে সিটি কর্পোরেশনের কোন আপত্তি নেই। তিনি বলেন রাত সাড়ে দশটায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা: সেলিনা হায়াৎ আইভী জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি, ও পুলিশ সুপারের প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠকের কথার সত্যতা স্বীকার করেন তিনি।

হকার্স আন্দোলনের নেতা ও কমিউনিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম জানান, বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া হকার নেতাদের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠকে জেলা প্রশাসক জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশন যৌথভাবে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কাল (১৯ জানুয়ারী ) বিকেল পাচঁ থেকে রাত দশটা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সড়ক ব্যাতিত চেম্বার রোড, কালিবাজার সিরাউদ্দৌলা সড়ক, সলিমুল্লাহ সড়ক, খানপুর হাসপাতালের সামনে সড়কে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত হকার বসতে পারবে।

উল্লেখ্য, নগরীরর বঙ্গবন্ধু সড়কসহ সকল সড়ক থেকে গত ২৫ ডিসেম্বর ফুটপাতের হকারদের উচ্ছেদ করা হয়। এই ঘটনার পর থেকে হকাররা ফুটপাতে বসার জন্য আন্দোলন চালিয়ে আসছিলেন। এই আন্দোলনে হকারদের পক্ষ নিয়ে নারায়ণগঞ্জ চার আসনের সাংসদ শামীম ওসমান গত ১৫ (জানুয়ারী ) ২৪ ঘন্টার সময় বেঁধে দিয়ে বলেন, ১৬ জানুয়ারী বিকেল সাড়ে চারটা থেকে নগরীর ফুটপাতে হকার বসবে। এটা আমার নিদের্শ। এই প্রেক্ষিতে নগরীর ফুটপাতে হকার বসে। প্রতিবাদে পরদিন মেয়র আইভী সিটি কর্পোরেশন থেকে পায়ে হেটে চাষাঢা এলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধেঁ যায়।

এতে মেয়র আইভী ও বেশ কয়েকজন সাংবাদিকসহ সহ প্রায় শতাধিক লোক আহত হয়। এ ঘটনার পর থেকে মেয়র আইভী ও সাংসদ শামীম ওসমান পৃথকভাবে সংবাদ সম্মেলনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়ে আসছেন। এতে নারায়ণগঞ্জ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

উৎসঃ পূর্বপশ্চিম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত