শিরোনাম
◈ সংঘাতের পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে ◈ দেশজুড়ে সহিংসতার ঘটনায় অভিযান, গ্রেপ্তার ২৭৪৭ ◈ আজ বিদেশি কূটনীতিকরা ধ্বংসযজ্ঞ পরিদর্শনে যাবেন ◈ চলমান সংকটে রাজশাহীতে কৃষিখাতে দিনে ২০ কোটি টাকার ক্ষতি ◈ কারফিউ শিথিল সময়ে চলবে দূরপাল্লার বাস ◈ প্রাণহানি ও ধ্বংসাত্মক ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছে সম্পাদক পরিষদ ও নোয়াব ◈ ড. ইউনূস রাষ্ট্রদ্রোহী কাজ করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশের সহিংসতা বন্ধে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি জরুরি আহ্বান জানিয়েছেন ড. ইউনূস ◈ নরসিংদী কারাগার থেকে পালানো ১৩৬ কয়েদির আত্মসমর্পণ ◈ কতজন শিক্ষার্থী মারা গেছেন, জানতে সময় লাগবে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ, ২০২৪, ০৭:৫৫ বিকাল
আপডেট : ২৫ মার্চ, ২০২৪, ০৭:৫৫ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

গর্ভকালীন সময়ে সরকারিভাবে মায়েদের সেবাদানের উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান

শাহীন খন্দকার: [২] সোমবার রাজধানীর গুলশান ২-এর একটি হোটেলে আয়োজিত দ্বীপ এলাকায় মিডওয়াইফ পরিচালিত স্বাস্থ্য সেবা প্রদান শীর্ষক অনুষ্ঠানে বক্তারা এই আহ্বান জানান। 

[৩] বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা পার্টনার্স ইন হেলথ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) ও কনসার্ন ওয়ার্লওয়াডের যৌথ প্রকল্পে দেশের দ্বীপ এলাকায় পরিচালিত হচ্ছে মিডওয়াইফ ভিত্তিক স্বাস্থ্য সেবা প্রজেক্ট।

[৪] এই প্রকল্প ভোলা জেলার চরফ্যাশন এবং মনপুরা উপজেলায় পরিচালিত হয়। এই প্রকল্পের মাধ্যমে মিডওয়াইফদের মাধ্যমে হাসপাতালে প্রায় ৬০০ শিশুর জন্ম হয়েছে। দ্বীপ এলাকায় মাঠপর্যায়ে কাজ করে ও নানাভাবে বুঝিয়ে হাসপাতালে শিশু জন্মদানে উৎসাহিত করতে কাজ করেছেন মিডওয়াফ ইতি আক্তার। তিনি বলেন, গ্রামাঞ্চলে মানুষদের হাসপাতালে নিয়ে আসা অনেক কষ্টকর। পরিবার থেকে শ্বশুর শাশুড়িরা রাজি হতে চায় না। তারা চায় বউয়ের ডেলিভারি ঘরেই হোক।

[৫] তিনি বলেন, এলাকায় ধাত্রীরাও সমস্যা করে। তারা প্রথম থেকে একজন গর্ভবতীকে দেখাশোনা করে না। শুধুমাত্র বাচ্চা আসার আগে তাদের পরিবারগুলো ডেকে নিয়ে আসে। এছাড়া দ্বীপ এলাকা হওয়ায় গভীর রাতে যদি শিশু জন্মদানের সময় হয় নদী পার হয়ে তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসা সম্ভব হয় না।

[৬] দ্বীপ এলাকায় মিডওয়াফ পরিচালিত স্বাস্থ্য সেবা প্রদান শীর্ষক জাতীয় পর্যায়ে জ্ঞান আদান-প্রধান ওয়ার্কশপে বক্তারা বলেন, গর্ভকালীন সময়ে ও শিশু জন্মদানের সময় মায়েদের নানা ঝুঁকি থাকে। মাতৃমৃত্যু ও শিশুর মৃত্যু রোধে এবং মা-শিশুকে সুস্থ রাখতে হাসপাতালে যথাযথ চিকিৎসার মাধ্যমে শিশু জন্মদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

[৭] কিন্তু গ্রামাঞ্চলে এ বিষয়ে সঠিক জ্ঞান না থাকায় কোনো স্বাস্থ্যসেবা ছাড়াই ঘরেই সাধারণভাবে শিশু জন্মদানের চেষ্টা করানো হয়। তাদের মাঝে গর্ভকালীন সময়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং হাসপাতালে ডেলিভারি করানোর বিষয়ে সঠিক জ্ঞান থাকে না। ধর্মীয় গোঁড়ামিও অনেকটা বাধাগ্রস্ত করে হাসপাতালে শিশুর জন্মদান।সম্পাদনা: সমর চক্রবর্তী

এসকে/এসসি/এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়