শিরোনাম
◈ বিএনপিতে শুদ্ধি অভিযান শুরু, সরকারের সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগে ফেঁসে যাচ্ছেন শতাধিক নেতা  ◈ তুরস্কে কন্ট্রাক্ট ফার্মিংয়ে বাংলাদেশি কৃষিবিদ ও কৃষক নিয়োগের প্রস্তাব  ◈ ফুটপাত থে‌কে জ্বলন্ত চুলা ও সিলিন্ডার সরা‌লো পু‌লিশ, আটক ৮  ◈ প্রধানমন্ত্রীকে বড়পীর আব্দুল কাদের জিলানীর (র.) মাজার জিয়ারতের আমন্ত্রণ ◈ রাজধানীজুড়ে রেস্তোরাঁয় পুলিশি অভিযান, আটক ৩৫ ◈ প্রবাসী আয়ে চমক, ৮ মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স ফেব্রুয়ারিতে ◈ রমজানে সৌদি আরবে মাইক ব্যবহার ও সম্প্রচার সীমিত করে ৯ দফা নির্দেশনা ◈ পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ◈ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড হাইকোর্টে রিট দায়ের ◈ গাজায় মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ বন্ধে ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগের আহবান বাংলাদেশের

প্রকাশিত : ২৭ নভেম্বর, ২০২৩, ০২:৫০ রাত
আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০৪:০২ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও তার ছেলে

মোশতাক আহমেদ শাওন : নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমানের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও এই আসনটির সাবেক সংসদ সদস্য মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন।

একই সাথে এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মুহাম্মদ কায়সারও।

রবিবার জেলা নির্বাচন অফিস থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তারা। তবে পিতা-পুত্র কেউই স্বশরীরে গিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেননি। তাদের পক্ষে এই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহকারি প্রার্থীদের তালিকায়ও গিয়াস উদ্দিন ও তার ছেলের নাম রয়েছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে গিয়াসউদ্দিন ও তার ছেলে মুহাম্মদ কায়সারের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের বিষয়টি রবিবার রাতে নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ইশতাফিজুল হক আকন্দ।

তিনি বলেন, এ খবরটি সঠিক। তবে প্রার্থীরা কেউই স্বশরীরে এসে মনোননয়নপত্র সংগ্রহ করেননি। বিকেল সাড়ে তিন টার দিকে দুই প্রার্থীর পক্ষ থেকে তাদের দলীয় লোক এসে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে নিয়ে গেছেন।

এদিকে, নির্বাচন অফিস থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার কথা অস্বীকার করে এই খবর পুরোপুরি মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন।

রাতে নিজের ফেসবুক আইডি থেকে গণমাধ্যমের উদ্দেশ্যে লেখা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গিয়াস উদ্দিন দাবি করেন, এমন তথ্য যারা ছড়াচ্ছে তারা সরকারি দলের কতিপয় গোষ্ঠীর যোগ সাজশে ছড়াচ্ছেন। এ ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশসহ এমন মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদও জানান তিনি। পাশাপাশি এ ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন জেলা বিএনপির সভাপতি মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গিয়াস উদ্দিন আরও বলেন, অনেকেই রাজনৈতিক গেম খেলার চেষ্টা করছেন। সেই গেমের অংশ হিসেবে অনেকেই ছড়িয়ে দিচ্ছেন আমি নাকি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবো! এমন প্রচারণা প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক কতিপয় ব্যক্তিদের দুরভিসন্ধি ছাড়া আর কিছু নয়। আমাকে এবং আমার পরিবারকে হেয় করার উদ্দেশ্যেই এমন তথ্য ছড়ানো হচ্ছে যা ডাহা মিথ্যা। কোনো একটি মহল সুপরিকল্পিতভাবে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে। নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নই আস না।

উল্লেখ্য, শামীম ওসমান ১৯৯৬ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হয়ে প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালের নির্বাচনে এই আসনে বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধিন চার দলীয় ঐক্য জোটের প্রার্থী হয়ে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হন মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন। পরবর্তীতে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে পর পর দু'বার এ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন শামীম ওসমান।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়