শিরোনাম
◈ মিয়ানমার সীমান্তে আগের পরিস্থিতি আর সৃষ্টি হবে না: প্রত্যাশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর  ◈ জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভেদ নাই: রওশন এরশাদ ◈ সাংবাদিকরা চাষাবাদ করছেন কি না, দেখার দায়িত্ব পেলেন শাইখ সিরাজ ◈ কারামুক্ত বিএনপি নেতা আলালের স্বাস্থ্যের খোঁজ নিলেন মঈন খান ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে: প্রধানমন্ত্রী ◈ শুক্রবার বিশ্বে বাতাস দূষণের তালিকায় ঢাকা ছিল সপ্তম ◈ মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে নির্বাচন  নিয়ে কেউ প্রশ্ন করেনি: প্রধানমন্ত্রী ◈ লোহিত সাগরে হামলায় ব্যবহার করা হবে সাবমেরিন অস্ত্র: হুথি নেতা  ◈ ২১ বলে সেঞ্চুরি করে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন আসজাদ ◈ যারা সরকার উৎখাত করতে চায়, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি তাদেরই কারসাজি: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ০৬ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০২:২৪ রাত
আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০২:২৪ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আগের মেট্রিক পাস এখনের পিএইচডির সমান

গাজী নাসিরউদ্দিন আহমেদ

গাজী নাসিরউদ্দিন আহমেদ: আগের সবকিছুই নাকি ভালো ছিল। এইটাকে ব্যক্তির নস্টালজিয়ার চেয়ে বেশি কিছু মানতে আমি নারাজ। আমাদের আমলেই আমরা শুনেছি, তোমাদের এসব কী পড়াশোনা নাকি। আগের মেট্রিক পাস এখনের পিএইচডির সমান। উদাহরণ দিই। নিজেকে জাহির করতে নয়। পরিস্থিতি বোঝাতে বলছি। আমার দাদার খুব ঘনিষ্ঠ এক বন্ধুর হাতের লেখা ছিল খুব সুন্দর। লোকজনের কাছে খুব সুনাম ছিল। আমাদের এলাকার অনেককেই উনি ইংরেজিতে দরখাস্ত লিখে দিতেন বলে শুনেছি। মেট্রিক পাস ছিলেন। তো ক্লাস এইটে পড়ার সময় আমিও তো তেমন দরখাস্ত লিখতে পারতাম। ইন্টার পরীক্ষা দিচ্ছি। বড় মামা জিজ্ঞেস করলেন, আজ কী পরীক্ষা দিলি? আমি বললাম, পদার্থবিদ্যা। মামা সংকোচে জিজ্ঞেস করলেন, এটা কি ফিজিক্স নাকি কেমিস্ট্রি। মামার খুব সুনাম ছিল যে উনি বাংলার চাইতে ইংরেজি বেশি জানতেন। অথচ দেখেন, ইন্টারে পড়তেই আমি ফিজিক্সও জানি, পদার্থবিদ্যাও জানি। মামার প্রচণ্ড আদর পেয়ে বড় হয়েছি। তার বদনাম করা আমার উদ্দেশ্য নয়। 

জেনারেশনের কালেক্টিভ স্মৃতিকাতরতা কখনো কখনো ক্ষতিকর। কালেকটিভ কনশাসনেসের নেগেটিভ ম্যানিফেস্ট্যাশন। সেদিন নাকি আমার বাবা পাকিস্তানের খেলার সময় হঠাৎ করে টেলিভিশনে শুনে পাক সাদ জমিন সাদ গেয়ে ওঠে। আমার ভাই আতঙ্কিত হয়ে আমাকে ফোন দিলো, আব্বু জানি কেমন করছে।  পাকিস্তানের জাতীয় সংগীত গাইছে। আব্বুকে ফোন করলাম। বললো, ধুরো আমরা স্কুলে গাইতাম তো, হঠাৎ ছোটবেলার কথা মনে পড়লো। অকারণে ঘাবড়ে গেছে। প্রসঙ্গত বলে রাখা ভালো, আমাদের পরিবারে পাকিস্তান একটি খারাপ বস্তু ধরে নিয়ে সব শিক্ষা দেওয়া হয়েছে। আব্বুরটা নিছক স্মৃতিকাতরতা। কিন্তু অনেকেরটা তা নয়। পাকিস্তান আমলেই ভালো ছিলাম নিছক স্মৃতিকাতরতা নয়। শিক্ষা নিয়েও যে নস্টালজিয়া সেটা স্মৃতিতে থাকাই ভালো। আমার ভাইস্তা গিলগামেশ এআই চেনে। আমি ওর বয়সে চিনতাম না। আমার ভাগ্নি তুতু যতোটা স্মুথলি টাচফোন ব্যবহার করে, আমি জীবনেও তা পারবো না। সুতরাং শিক্ষা নিয়ে হাউকাউ থাকবে। 

সর্বকালের অন্যতম সেরা পদার্থবিদ রিচার্ড ফাইনম্যানের একটি কথা আছে। তার কথা সম্ভবত এমন যে, পাখির নাম জানা আর পাখিটিকে জানা এককথা নয়। পাখিটিকে জানতে হবে। কলেজ এডুকেশন নিয়ে আইনস্টাইনেরও একটি কথা কোট হয়ে ফেসবুকে ঘুরে। তাহলো কলেজ কি আমাকে নতুন নতুন অনেক কিছু শেখাবে? না। কলেজ এমনকি আপনাকে চিন্তা করতেও শেখাবে না। আপনার মনকে চিন্তা করার প্রশিক্ষণ দেবে। শিক্ষা নিয়ে বহু তত্ত্ব আছে। বেশির ভাগই আমি জানি না। তবে আমি মনে করি, কোনো কিছু জানা ও মনকে চিন্তা করতে শেখার প্রশিক্ষণ দিতে পারলে জীবন-জগতের অনেক কুহেলিকার সামনে আপনি ভড়কে যাবেন না। লেখক: সাংবাদিক। ফেসবুকে ৪-১২-২৩ প্রকাশিত হয়েছে।  

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়