শিরোনাম
◈ নাবিকদের ভিসা জটিলতা নিরসনে আইএমও’র সহযোগিতার আশ্বাস ◈ আগামী বছরের শুরুতে তৃতীয় টার্মিনালে যাত্রী পরিবহন শুরু হতে পারে: বিমানমন্ত্রী ◈ ভাইভা হলেও তদন্তের আগে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ হবে না ◈ ভাষণে নয়, রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে দেশ স্বাধীন হয়েছে: গয়েশ্বর রায় ◈ একশ ভাগ সফলতা নিয়েই বাংলাদেশে ফিরছি: ডিবি প্রধান  ◈ বাংলাদেশ আইএমও’র মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু মেরিন স্কলারশিপ চালু করতে চায়: প্রধানমন্ত্রী ◈ ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক এমপি মনজুর হোসেন মারা গেছেন ◈ ঈদে সাধারণ মানুষের কাছে অতিরিক্ত ভাড়া  না নেওয়ার নির্দেশ ওবায়দুল কাদেরের  ◈ জামানত হারালেন ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই ◈ দেশ এখন দুর্বৃত্ত ও মাফিয়াদের দখলে: মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত : ০৪ মার্চ, ২০২৪, ০১:৪৯ রাত
আপডেট : ০৪ মার্চ, ২০২৪, ০১:৪৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

সেকেলে অভিযোগে দায়িত্বশীলদের দায় এড়ানো 

নাদিম মাহমুদ

নাদিম মাহমুদ: ধরুন, আপনি একটা বাসা ভাড়া নিতে চাচ্ছেন। ওই বাসার কী কী সুবিধা আছে তা জানার জন্য আপনাকে সেই বাসায় যেতে হবে, মালিকের সাথে কথা বলে বাসা ভাড়া ঠিক করতে হবে। যদিও আধুনিক সময়ে কিছু কিছু বাসা ভাড়া অনলাইনে হচ্ছে, ছবিও দেওয়া থাকে। আমেরিকা, জাপানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাসা ভাড়া পেতে হলে ওইসব অনলাইন মাধ্যমে যোগাযোগ করেই এগিয়ে যেতে হয়। সেই ওয়েবসাইটেই বাসার সবকিছু বর্ণনা দেওয়া থাকে। এখন বাংলাদেশ সরকার যদি এমন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে দেন, যেখানে ওই বাসার মালিকের জন্য সরকারিভাবে ইস্যূকৃত সনদপত্র, বাসার নকশা, অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থার বিষয়ে ফায়ার সার্ভিসের সনদপত্র পাওয়ার সুযোগ করে দেন, তাহলে বিষয়টি কেমন হয়? 

এই যে আগুন লাগার পর সরকারি দপ্তরগুলো যে ভবনগুলোর ছাড়পত্র নেই বলে ‘অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায়’ নিজেদের পাক-পবিত্র করে, ভবন ধসের পর বলে নকশা অনুযায়ী ভবন করেনি বা নকশায় ঠিক নেই, সেইসব অসুদপায়গুলো অন্তত বন্ধ হবে। দুইপক্ষের মিথ্যাচার বন্ধ হবে। দায়িত্বে অবহেলাটুকু বন্ধ হবে। বাসা ভাড়া নেওয়ার আগে ভাড়াটিয়ারা জেনে নেবে সেই ভবনগুলো কবে তৈরি হয়েছে, নকশা অনুযায়ী বাসা ঠিকঠাক কি না, অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা ঠিক আছে কি না তা মুঠোফোনের পেয়ে যাবে। রেস্তোরায় খাবার খাওয়ার আগে জানবে, সেই রেস্তোরার ভবনটি ঝুকিমুক্ত কি না। শপিং করতে যাওয়ার আগে জানবে ওই ভবনে নীচে বিস্ফোরণের জন্য মরণফাঁদের কারখানা আছে কি না। 

গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বাড়ান, সিটি কর্পোরেশনের দপ্তরগুলোকে কার্যকর করবার জন্য সরকার যেদিন এসব কাজ করতে পারবে, মনে রাখবেন সেইদিনেই ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ, স্মার্ট বাংলাদেশ’ তকমা দেয়া সার্থক হবে। নতুবা সেকেলে অভিযোগে দায়িত্বশীলদের দায় এড়ানো বন্ধ হবে না, মানুষের মৃত্যুর পর গাফিলতির চিত্র একটার পর একটা চলতেই থাকবে। ফেসবুকে ২-৩-২৪ প্রকাশিত হয়েছে। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়