শিরোনাম
◈ রাজধানী কারওয়ান বাজারে যমুনা এক্সপ্রেসের বগি লাইনচ্যুত ◈ মুজিবনগর দিবস, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ◈ মুজিবনগর দিবস বাঙালির শৃঙ্খলমুক্তির  ইতিহাসে অবিস্মরণীয় দিন: প্রধানমন্ত্রী ◈ তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকলে সন্ধ্যায় লোডশেডিং বাড়তে পারে ◈ বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে আরও ৫০ বিজিপি সদস্যের অনুপ্রবেশ ◈ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ ◈ মহেশখালী সমন্বিত উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনের খসড়া আজ মন্ত্রিসভায় উঠছে ◈ গাজীপুরে কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে চীনা নাগরিকের মৃত্যু ◈ প্রধানমন্ত্রীর সৌদি আরব ও গাম্বিয়া সফর বাতিল ◈ এ বছর জিডিপি প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৫.৭%: আইএমএফ

প্রকাশিত : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৬:১৬ বিকাল
আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৬:১৬ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

হলমার্ক কেলেঙ্কারির এক মামলার রায় ঘোষণা পিছিয়ে গেল 

এম.এ. লতিফ, আদালত প্রতিবেদক: [২] স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণকারী দুই হাকিমের সাক্ষ্য বাদ পড়ায় দুদকের আবেদনে পিছিয়ে গেল হল-মার্ক কেলেঙ্কারির এক মামলার রায়।

[৩] বুধবার ঢাকার প্রথম বিশেষ জজ আদালতে আলোচিত এ মামলার রায়ের তারিখ ছিল। কিন্তু দুদকের আবেদন মঞ্জুর করে বিচারক মো. আবুল কাশেম রায় না দিয়ে ৪ মার্চ ফের সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ রেখেছেন। 

[৪] এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১ এর বিচারক মো. আবুল কাশেম রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য বুধবার দিন ধার্য করেন।

 [৪] এ মামলার আসামিরা হলেন, হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. তানভীর মাহমুদ, তার স্ত্রী ও গ্রুপের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলাম, তানভীরের ভায়রা ও গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমেদ, টি অ্যান্ড ব্রাদার্সের পরিচালক তসলিম হাসান, ম্যাক্স স্পিনিং এর মালিক মীর জাকারিযা, প্যারাগন গ্রুপের এমডি সাইফুল ইসলাম রাজা, নকশী নিটের এমডি মো. আবদুল মালেক, সাভারের হেমায়েতপুরের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জামাল উদ্দিন সরকার, সোনালী ব্যাংক হোটেল শেরাটন শাখার সহকারী উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. সাইফুল হাসান ও নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মতিন, সোনালী ব্যাংক ধানমন্ডি শাখার জ্যেষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেরুন্নেসা মেরি, সোনালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের জিএম অফিসের জিএম ননী গোপাল নাথ ও মীর মহিদুর রহমান, সাবেক এমডি হুমায়ুন কবির, ডিএমডি মাইনুল হক, উপ-মহাব্যবস্থাপক শেখ আলতাফ হোসেন ও সফিজউদ্দিন এবং এজিএম মো. কামরুল হোসেন খান।

[৫] আসামিদের মধ্যে জামাল উদ্দিন সরকার, আলতাফ হোসেন জামিনে রয়েছেন। এছাড়া সাইফুল, মতিন, হুমায়ুন, গোপাল নাথ, তসলিম, সাইফুল, মেরী ও জাকারিয়া পলাতক রয়েছেন।

[৬] মামলা সূত্রে জানা যায়, ম্যাক্স স্পিনিং মিলস নামে ভুয়া কোম্পানির হিসাবে ৫২৫ কোটি ৬২ লাখ ৯২ হাজার ৮০০ টাকা মূল্যের সুতা রপ্তানি করা হয় বলে নথিপত্রে দেখিয়ে ওই একাউন্টে পুরো অর্থ জমা করা হয়। পরবর্তীতে তা থেকে ১৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা হলমার্কের আরেক ভুয়া প্রতিষ্ঠান অ্যাপারেল এন্টারপ্রাইজের হিসাবে স্থানান্তর করে তানভীর ও তার স্ত্রী তুলে নেন। ০৪ অক্টোবর, ২০১২ আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতারণা, জালিয়াতি, অর্থ আত্মসাৎ, পরস্পরের যোগসাজশে ক্ষমতার ও অর্থের অপব্যবহার এবং পাচারের অভিযোগে রাজধানীর রমনা থানায় এ মামলা দায়ের করে দুদক। ২৭ মার্চ, ২০১৬ তৎকালীন ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে পরবর্তী বিচারের জন্য ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১ এ বদলির আদেশ দেন। সম্পাদনা: কামরুজ্জামান

প্রতিনিধি/কে/এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়