শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৭:২৫ বিকাল
আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০১:২০ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভারতীয় পণ্য বর্জনে গণঅধিকার পরিষদের বিক্ষোভ, মিছিলে পুলিশী বাঁধার অভিযোগ 

রিয়াদ হাসান: [২] রাজধানীতে ভারতীয় পণ্য বয়কটের ডাকে শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বাদ জুমআ বিক্ষোভ মিছিল করেছে গণঅধিকার পরিষদ (একাংশ)। বিক্ষোভ মিছিলটি কালভার্ট রোড থেকে শুরু হলে পুলিশের একটি টিম এসে বাঁধা প্রদান করে এবং বলে রাজপথে ভারতীয় ইস্যুতে প্রোগ্রাম করার কোন অনুমতি নেই, এমন অভিযোগ করেন দলের নেতাকর্মীরা।

[৩] পরে গণঅধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিয়ে পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে মিছিল শুরু করে। মিছিলটি নয়াপল্টন হয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে গিয়ে জামান টাওয়ারে এসে শেষ হয়।

[৪] বিক্ষোভ শেষে দলের আহ্বায়ক কর্ণেল অব. মিয়া মশিউজ্জামান বলেন, আমরা ভারতীয় আগ্রাসন ও আধিপত্যবাদের হাত থেকে মুক্তি না পেলে দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বলে কিছু থাকবেনা। আজকে পুরো বাংলাদেশটাকে ভারতীয় তাবেদার বাহিনী অক্টোপাসের মতন গিলে ফেলেছে। এখান থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে।

[৫] গণঅধিকার পরিষদের সদস্য ভারপ্রাপ্ত সচিব ফারুক হাসান বলেন, এ লড়াই অনেক কঠিন এবং অনেক চ্যালেঞ্জিং জানা সত্বেও আমরা রাজপথে নেমেছি। আমরা জানি, ভারতের হাত থেকে দেশকে মুক্ত করতে না পারলে বিজয় আসবেনা।

[৬] তিনি আরও বলেন, আজকে দেখুন বিমানে বাংলাদেশের একজন যাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েছে, ভারত জরুরি অবতরণ করতে দেয়নি কিন্তু পাকিস্তান সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। এই ঘটনার পর কেউ যদি বলে ভারত আমাদের বন্ধু রাষ্ট্র, আমি মনে করি তার মাথায় সমস্যা আছে।

[৭] ফারুক হাসান বলেন, আজকে আমাদের সীমান্ত অরক্ষিত, প্রতিনিয়ত ভারতীয় সীমান্ত বাহিনীর গুলিতে বাংলাদেশের নাগরিকগণ মারা পড়ছে। কিন্তু এর কোন বিচার আজ পর্যন্ত হয়নি, আর হবে বলে আমরা মনেও করিনা। ভারতীয় পণ্য বয়কটের মাধ্যমে আমাদের এ লড়াই চলবে।।

[৮] বিক্ষোভ মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন গণনেতা তারেক রহমান, মোহাম্মদ আতাউল্লাহ, প্রফেসর মাহবুব হোসেন, সাংবাদিক আরিফুর রহমান তুহিন, মাহবুব জনি, অ্যাডভোকেট শিরিন আকতার, ইঞ্জিনিয়ার ফাহিম, জিয়াউর রহমান, আরিফ বিল্লাহ, মহানগর নেতা শফিকুল ইসলাম রতন প্রমূখ। সম্পাদনা: কামরুজ্জামান

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়