শিরোনাম
◈ প্রধানমন্ত্রীর থাইল্যান্ড সফরে রোহিঙ্গা ফেরাতে সহযোগিতা চাওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী  ◈ যুদ্ধের অর্থ জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ব্যয়  হলে বিশ্ব রক্ষা পেতো: প্রধানমন্ত্রী ◈ বুধবার থাইল্যান্ড সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী, সই হচ্ছে ছয় চুক্তি-সমঝোতা ◈ আরও ৭২ ঘণ্টার  ‘হিট অ্যালার্ট’ জারি ◈ যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিপরিষদে টিকটক নিষিদ্ধের বিল পাস ◈ অভিনেতা ওয়ালিউল হক রুমি মারা গেছেন ◈ গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রেকর্ড গড়েছে ডাবের দাম ◈ আজ ঢাকা আসছেন কাতারের আমির, ১১টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হবে ◈ মালদ্বীপের নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলো প্রেসিডেন্ট মুইজ্জুর দল  ◈ সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার তৃতীয় ধাপের সংশোধিত ফল প্রকাশ

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০২:১৭ দুপুর
আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০:০৮ দুপুর

প্রতিবেদক : সালেহ্ বিপ্লব

মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে নির্বাচন  নিয়ে কেউ প্রশ্ন করেনি: প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

সালেহ্ বিপ্লব: [২] গণভবনে শুক্রবার সকালের সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, জার্মানিতে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে কেউ কোনো কথা বলেননি, কোনো উদ্বেগ নেই; প্রশ্নও নেই। তাদের সঙ্গে বেশির ভাগ আলোচনা ছিলো দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে, বিনিয়োগ নিয়ে কথা বলেছি। বিটিভি

[২.১] প্রধানমন্ত্রী বলেন, ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ নিয়ে নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে কথা হয়েছে। এ বিষয়ে তাদের সঙ্গে আমাদের চুক্তি আছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ নিয়ে কথা হয়েছে। তিনিও আমার মতো ১৫ বছর ধরে ক্ষমতায় আছেন। তাকে বোধ হয় ন্যাটোতে নিয়ে যাওয়া হবে। জানালেন, আর নির্বাচন করবেন না। আমিও যদি তার মতো করতে পারতাম, তাহলে খুশি হতাম। কৃষি খাতেও নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে আমাদের কাজ আছে। 

[২.২] বেলজিয়ামের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, মূলত পায়রা বন্দর নিয়ে আমরা কথা বলেছি। যথারীতি ড্রেজিং-এর ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। 

[২.৩] ডেনমার্কের সঙ্গে শিপিং এবং শিপ বিল্ডিং নিয়ে কথা হয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। ফ্রান্সের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে জলবায়ু ইস্যুতে, এর মধ্যেই দেশটি আমাদের এই খাতে সহায়তা দিয়েছে। 

[৩] শেখ হাসিনা বলেন, ইউরোপের দেশগুলোর সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। রাষ্ট্রীয় সম্পর্কের পাশাপাশি ব্যক্তিগত সম্পর্ক থাকাতে সুবিধা হয়েছে। তাই নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রশ্ন তোলেনি। তারা জানতো, আমি জিতে আসবো। যারা চায়নি, তারাই প্রশ্ন তোলে। 

[৩.১] তিনি বলেন, এক দেশে নির্বাচনের পর ১১/১২ দিন পার হয়ে যায়, রেজাল্ট হয় না, সেটা ফেয়ার ইলেকশন। আর আমাদের দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেজাল্ট হয়ে যায়, সেটা ফেয়ার না। ওরকম যদি আমাদের দেশে হতো, তাহলে খুশি হতো। বোধ হয় অনেকের মন খারাপ। তাদের মন ভালো হয়ে যাবে, অসুবিধে নেই। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়