শিরোনাম
◈ পশুরহাটে ইউটিউবার ও টিকটকারের উৎপাতে অতিষ্ঠ ক্রেতা-বিক্রেতারা  ◈ বাংলাদেশের গণমাধ্যম ইতিহাসের সবচেয়ে ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে: বিএফইউজে-ডিইউজে ◈ রাঙামাটিতে বজ্রপাতে নারীসহ ৪ জনের মৃত্যু ◈ আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রতি বিশ্বের ৯৩টি দেশের সমর্থন  ◈ বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য হলেন আরও ৫ জন ◈ প্রধানমন্ত্রীর ডাকে ছুটে এলো খরগোশের দল ◈ সেন্টমার্টিন ইস্যুতে সরকারের নীরবতা দাসসুলভ মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ: মির্জা ফখরুল ◈ এবার বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে বড় ধরনের রদবদল  ◈ বৃক্ষ নিধন করাই বিএনপি’র চরিত্র: প্রধানমন্ত্রী ◈ হাজীদের লাব্বায়েক ধ্বনিতে মুখরিত আরাফাত ময়দান (ভিডিও)

প্রকাশিত : ২১ মে, ২০২৪, ০৯:২৮ রাত
আপডেট : ২২ মে, ২০২৪, ১১:১১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বাংলাদেশি পণ্যের জন্য ডিউটি ফ্রি, কোটা ফ্রি সুবিধা অব্যাহত রাখবে অস্ট্রেলিয়া 

খুররম জামান: [২] মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীতে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বাংলাদেশ সফররত অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে যৌথ প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদেরকে মন্ত্রী হাছান এ কথা জানান। 

[৩] অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার এম আল্লামা সিদ্দিকী এবং ঢাকায় অস্ট্রেলিয়ার ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার নাদিয়া সিম্পসন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

[৪] হাছান মাহমুদ জানান, বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে দক্ষ জনশক্তি রপ্তানি, বাংলাদেশের ১০০টি বিশেষ ইকনোমিক জোন এবং ৪০টি আইটি ভিলেজে অস্ট্রেলিয় বিনিয়োগ, বাংলাদেশিদের মৌসুমি কর্মসংস্থান, সেখানে প্রবাসীদের কল্যাণ, অবৈধ অভিবাসন রোধ, জ্বালানি ও পরিবেশ সংরক্ষণে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। 

[৫] অস্ট্রেলিয়ার টেকনিক্যাল এন্ড ফারদার এডুকেশন  সহায়তার আওতায় বাংলাদেশের টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারগুলোতে  উন্নত প্রশিক্ষণ সহযোগিতা কামনা করেছি। অস্ট্রেলিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ইউটিসি'র সাথে আমাদের চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রেডিট ট্রান্সফার সুবিধা রয়েছে যেমনটি অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য করার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।

[৬] গত চার বছরে দু'দেশের বাণিজ্যের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে চার বিলিয়ন অস্ট্রেলিয় ডলারে দাঁড়িয়েছে যা আমরা আগামী পাঁচ বছরে দ্বিগুণ হবে বলে আশা করি, বলেন তিনি। 

[৭] অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং বলেন, সামাজিক, অর্থনৈতিক, পরিবেশ সংরক্ষণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ যে ব্যাপক উন্নতি করেছে, তা আরো এগিয়ে নিতে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশের পাশে থাকতে চায়। 

[৮] এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মেরিটাইম সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য তার দেশের কোস্ট গার্ড প্রধান বাংলাদেশ সফর করবেন। ভারত মহাসাগরীয় দুই দেশের অভিন্ন স্বার্থরক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা, মানবাধিকারসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নয়নে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশের সাথে একযোগে কাজ করতে প্রস্তুত উল্লেখ করেন তিনি। 

[৯]অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং সাংবাদিকদের বলেন, এ অঞ্চলে আমরা একসঙ্গে মূল্যবোধ এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় কাজ করতে চাই। বাংলাদেশের জীবন-মান উন্নয়নে অস্ট্রেলিয়া অতিরিক্ত তহবিল দিয়ে সহযোগিতা করবে। বাংলাদেশের শ্রম সংস্কার খাতে সহযোগিতা করতে অস্ট্রেলিয়া অতিরিক্ত তহবিল করবে। সামনে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উত্তরণ করবে, এলডিসি থেকে উত্তরণ যেন মসৃণ হয় সেজন্য অস্ট্রেলিয়া অতিরিক্ত তহবিল দিয়ে সহযোগিতা করবে। আমরা দুই দেশের মানুষের মধ্যে সংযোগ বাড়াতে চাই। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জন্য শুভ কামনা।

[১০] রোহিঙ্গা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারে ধারাবাহিকভাবে উত্তেজনা চলছেই, যা উদ্বেগজনক। মিয়ানমারের এই উত্তেজনা নিরসনে আমরা কাজ করব। মিয়ানমারের উত্তেজনার কারনে দেশিটির নাগরিক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীরা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারকে ধন্যবাদ। আমি রোহিঙ্গা পরিস্থিতি সরেজমিন দেখতে কক্সবাজারের শিবিরগুলো পরিদর্শন করব।

[১১] এক প্রশ্নের জবাবে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মেরিটাইম খাতের সহযোগিতা নিয়ে আমাদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। এই বিষয়ে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। মেরিটাইম খাতে যে উত্তেজনা বা চ্যালেঞ্জ আছে তা কোনোদেশই এককভাবে সমাধান করতে পারবে না। কিন্তু সম্মিলিতভাবে সবাই একসঙ্গে কাজ করলে এই সকল চ্যালেঞ্জ সমাধান করা সম্ভব। আমরা দুইদেশ এসব ইস্যূতে একসঙ্গে কাজ করব। আমাদের দুই দেশের কোস্ট গার্ড একসঙ্গে কাজ করবে। পাশাপাশি এই খাতের বাস্তবিক যেসব ইস্যু আছে সেসব নিরসনে আমরা দুইপক্ষ একসঙ্গে কাজ করব। বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্ব ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে। সম্পাদনা: কামরুজ্জামান

এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়