শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০২:৪০ দুপুর
আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৯:০৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

পাকিস্তানকে এফ-১৬, জয়শঙ্করের সমালোচনার জবাবে যা বললেন ব্লিনকেন

জয়শঙ্কর ও ব্লিনকেন

ইমরুল শাহেদ: পাকিস্তানের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের পরবাণুবাহী আটটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান বিক্রির সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান বিক্রি করবে বলেছে যুক্তরাষ্ট্র। এটা সত্যিই হাস্যকর নয় কি! সবাই জানে পাকিস্তান সন্ত্রাসেই মদত দেয়। আর এফ-১৬ যুদ্ধবিমান হাতে পেলে তার ব্যবহার কোন দিকে হবে সেটা বলে দেওয়ার দরকার নেই। দি ওয়াল

এস জয়শঙ্কর বলেছেন, নয়াদিল্লি মনে করে যুক্তরাষ্ট্রের এই যুদ্ধবিমান পাকিস্তান ভারত-বিরোধী কাজে ব্যবহার করবে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান বেচার যে সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্র নিয়েছে, তাতে আমরা অত্যন্ত হতাশ। আমরা এটাও বিশ্বাস করি না যে যুক্তরাষ্ট্রের এই যুদ্ধবিমান পাকিস্তান সন্ত্রাস দমনের কাজে ব্যবহার করবে। গত কয়েক বছরের ঘটনাপ্রবাহ দেখলেই স্পষ্ট হয়ে যাবে।’

মঙ্গলবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যান্টনি ব্লিনকেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলওয়াল ভূট্টো-জারদারির সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠক করার পর ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। স্নায়ুযুদ্ধ থেকে জন্ম নেওয়া মার্কিন-পাকিস্তান মিত্রতা, আফগানিস্তানে তালেবান শাসনের সঙ্গে ইসলামাবাদের সম্পর্কের বিষয়ে বিভ্রান্ত হয়েছে। ডন

শীর্ষ মার্কিন কূটনীতিক সেপ্টেম্বরের শুরুতে পাকিস্তানের জন্য অনুমোদিত ৪৫০ মিলিয়ন ডলারের এফ-১৬ চুক্তির সমর্থনে বলেন, প্যাকেজটি পাকিস্তানের বিদ্যমান নৌবহরের রক্ষণাবেক্ষণের জন্য। প্যাকেজটিতে কোনো নতুন সক্ষমতা, অস্ত্র বা গোলাবারুদ বিক্রি অন্তর্ভুক্ত নয় এবং পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের এফ-১৬ প্রোগ্রামকে টিকিয়ে রাখার লক্ষ্যে।

এস জয়শঙ্কর এবং ব্লিনকেন এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘প্যাকেজে নতুন কোনো বিমান নেই, নতুন কোনো সিস্টেম নেই, নতুন অস্ত্রও নেই। এখানে তাই আছে, যা তাদের কাছে আছে।’

  • সর্বশেষ