শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৫:২৮ বিকাল
আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৫:২৮ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

হঠাৎ জ্বর ও চোখ ফুলে ৪০ ছাত্র অসুস্থ্য, মাদ্রাসা বন্ধ ঘোষণা

ফরহাদ হোসেন, ভোলা : মনপুরায় হঠাৎ জ্বর ও চোখ ফুলে যাওয়ার ঘটনায় উপজেলা হাফিজিয়া মাদ্রাসার ৪০ ছাত্র অসুস্থ্য হয়ে পড়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় মাদ্রাসাটি। ওই মাদ্রাসায় আবাসিক রুমে থেকে দেড় শতাধিক ছাত্র হেফজ, নাজেরা ও নুরানী বিভাগে পড়ালেখা করে।

রোগটি ছড়িয়ে পড়ার আশংকায় রোববার মাদ্রাসাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন উপজেলা হাফিজিয়া মাদ্রাসার পরিচালক হাফেজ মাও. আবদুল মান্নান।

তিনি জানান, শনিবার বিকেলে  অসুস্থ্য ৪০ ছাত্রকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আশিকুর রহমানকে দেখানো হয়।

ডাক্তার সাহেবের পরামর্শে ছাত্রদের বিশ্রাম রেখে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ভাইরাস ও ছোঁয়াচে রোগটি যাতে অন্যান্য ছাত্রদের মাঝে ছড়িয়ে না পড়ে সেই আশংকা থেকে মাদ্রাসাটি বন্ধ রাখা হয়েছে বলে তিনি জানান।

জানা যায়, উপজেলা হাফিজিয়া মাদ্রাসার হেফজ, নাজেরা ও নুরাণী বিভাগ রয়েছে। এই তিন বিভাগে দেড় শতাধিক ছাত্র পড়াশুনা করে।

সবাই মাদ্রাসার আবাসিক রুমে থেকে পড়াশুনা করে। অধ্যায়নরত ছাত্ররা উপজেলার চারটি ইউনিয়ন ছাড়াও ভোলা জেলার অন্যান্য উপজেলার রয়েছে। এটি উপজেলার প্রথম হেফজখানা। এই মাদ্রাসাটি উপজেলা হাজিরহাট সদরে অবস্থিত।

এই ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আশিকুর রহমান অনিক বলেন, রোগটি ভাইরাস ও ছোঁয়াচে। শনিবার অসুস্থ্য ছাত্রদের দেখে ব্যবস্থাপত্র দেওয়া হয়েছে। অসুস্থ্য ছাত্রদের ৭ দিন বাড়িতে রেখে চিকিৎসার জন্য বলা হয়েছে।

এছাড়াও এই ধরনের অসুস্থ্য রোগিরা পুকুরে গোসল না করে কলের পানিতে গোসলসহ এদের ব্যবহৃত কাপড়, গামছা অন্যান্যরা ব্যবহারে না করতে পরামর্শ দেন তিনি।

এখনই সর্তকতা অবলম্বন না করলে দ্রুত রোগটি ছড়িয়ে পড়ার আশংকা করছেন তিনি। এই ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আশিষ কুমার বলেন, রোগটি যাতে না ছড়িয়ে পড়ে সেই ব্যবস্থা নিতে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সাথে আলাপ করে দ্রুত প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। সম্পাদনা : আল আমিন 

  • সর্বশেষ