শিরোনাম
◈ দেশের কারাগারে আটক ৩৬৩ জন বিদেশি নাগরিক, ভারতীয় ২১২ ◈ দেশের যেসব অঞ্চলে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আশঙ্কা ◈  সরকার থেকে বরাদ্দ করলে সংসদ সদস্যদের গাড়ি আমদানির প্রয়োজন নেই: সংসদে আলোচনা ◈ ঈদে যানজট এড়াতে ডিএমপির ২২ নির্দেশনা ◈ নেপিয়ার ঘাস খেয়ে মারা গেলো খামারের ২৬ গরু ◈ এমপি আনার হত্যা তদন্তে কোনো চাপ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ◈ সাধারণ নাগরিকের মতো করেই ড. ইউনূসের বিচার হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ◈ ড. ইউনূসের কথা অসত্য, জনগণের জন্য অপমানজনক: আইনমন্ত্রী ◈ সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি

প্রকাশিত : ১১ এপ্রিল, ২০২৪, ০৩:১০ দুপুর
আপডেট : ১১ এপ্রিল, ২০২৪, ০৩:১০ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মৌসুমী বৃষ্টি ডেঙ্গুর বিস্তার ঘটাবে বললেন, কীটবিদ কবিরুল আলম

শাহীন খন্দকার: [২] বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বৃষ্টি এডিস মশার প্রজননক্ষেত্র বাড়িয়ে ডেঙ্গু পরিস্থিতিকে খারাপ করে তুলতে পারে বলে সতর্ক করেছেন। ডেঙ্গুর বিস্তাররোধে এখন-ই কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

[৩] চলতি মার্চ থেকে (১১এপ্রিল) পর্যন্ত ৭দিন ঢাকায় এবং বিভিন্ন জেলায় বেশ কয়েকবার বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ত্ববিদ কবিরুল বাশার বলেছেন, মৌসুমী বৃষ্টি অবশ্যই ডেঙ্গুর বিস্তার ঘটাবে। তাই এডিস মশার বিস্তাররোধে ব্যবস্থার ওপর জোর দিতে বললেন তিনি।

[৪] আরও বলেছেন,এডিস মশার সম্ভাব্য প্রজনন স্থান গুলো চিহ্নিতসহ ধ্বংস করতে হবে স্থানীয় সরকারসহ দেশের জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেওয়া উচিত। প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ বলেছেন, কতৃপক্ষকে অবশ্যই আক্রান্ত রোগীদের ঠিকানা সংগ্রহ করে এডিস ক্লাস্টারগুলো চিহ্নিত করতে হবে। সেই সঙ্গে জনগণকেও সর্তক এবং সচেতন হতে হবে।

[৫] তিনি আরও বলেন,ডেঙ্গু এবং চিকনগুনিয়ার (এডিস মশাবাহিত রোগ) সেরোটাইপগুলো শনাক্ত করণসহ প্রতিরোধের উদ্যোগ নিতে হবে। তবে এজন্য জনগণকেও এগিয়ে আসতে হবে। যত্রোতত্র ডাবের খোসা, চীপস এর প্যাকেট টায়ারসহ ফুলেরটপে যেনো বৃষ্টির পানি জমতে দেওয়া যাবে না। 

[৬] তিনি আরও বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন ইতিমধ্যে বলেছেন, তিনি সারাদেশের হাসপাতালগুলোকে ডেঙ্গু রোগীদের সময়মতো চিকিৎসা দিতে প্রস্তুত থাকতে বলেছেন। মশা মারার জন্য আমাদের মানসম্পন্ন কীটনাশক কিনতে হবে।

[৭] আমাদের ভালো চিকিৎসাও দরকার। তিনি একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে বলেন, সবার সম্পৃক্ততা এবং সচেতনতা প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে। এদিকে মার্চ মাসে ৩১১ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন আর মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের।

[৮] জানুয়ারিতে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৫৫ জন আক্রান্ত আর মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। এছাড়া ফেরুয়ারিতে ৩৩৯ জন মৃত্যু হয়েছে ৩জনের। এপ্রিলে আজ বৃহস্পতিবার ১১ এপ্রিল দেশের কোথাও মৃত্যুর সংবাদ নেই। গতকাল বুধবার পর্যন্ত ৫৯ জন আক্রান্ত হয়েছে সারাদেশে বলে জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিপিএম ই-হেলথ, এম আই এস ইনচার্জ ডা. মুহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম। 

[৯] কীটতত্ত্ববিদ মঞ্জুর এ চৌধুরী বলেছেন, ডেঙ্গুর বিস্তার ঠেকাতে এখনই উপযুক্ত সময়। তিনি আরও বলেন, সংক্রমিত ব্যক্তি হতে যাতে ভাইরাসটি ছড়িয়ে না পরে সেই লক্ষ্যে রোগীদের মশারী ব্যবহার করা উচিত।

[১০] কেননা বর্ষায় ক্লাস্টারগুলো শনাক্ত করা এবং ধ্বংস করা কঠিন হয়ে পড়বে। ডেঙ্গু মশার বিস্তার রোধে জনসচেতনতা মূলক প্রচারণা ও জরুরি। কিন্তু দুঃখজনক এখন ও কোন রকম  প্রচেষ্টা দেখছি না বলে জানালেন মঞ্জুর এ চৌধুরী। সম্পাদনা: কামরুজ্জামান

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়