শিরোনাম
◈ গাজায় যুদ্ধবিরতি হলেও হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে হামলা বন্ধ হবে না:ইসরায়েল ◈ চার মাসের মধ্যেই প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ◈ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের দিবসটির গুরুত্ব বাড়াতে সরকার কার্যকর উদ্যোগ নেবেন, আশা জি এম কাদেরের ◈ সরকার সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে না: আইনমন্ত্রী ◈ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে অপতথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে ইসরায়েল: লুলা দা সিলভা ◈ গ্রামীণ টেলিকমসহ তার প্রতিষ্ঠানগুলোর লভ্যাংশ কাউকে দেয়া যায় না: ড. ইউনূস   ◈ মুখ খুলে মানুষ গণতন্ত্রের কথা বলতে পারছে না: ড. ইউনূস  ◈ স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ০১ ডিসেম্বর, ২০২২, ০৫:৫৯ বিকাল
আপডেট : ০১ ডিসেম্বর, ২০২২, ০৫:৫৯ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

পপ তারকা ক্রিস্টিন ম্যাকভি মারা গেছেন

ক্রিস্টিন ম্যাকভি

এ্যানি আক্তার: জনপ্রিয় ব্রিটিশ পপ তারকা ক্রিস্টিন ম্যাকভি মারা গেছেন। বুধবার ৭৯ বছর বয়সী এ সংগীত শিল্পীর মৃত্যু হয়। তার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, স্থানীয় একটি হাসপাতালে মারা যান তিনি। পরিবারের সদস্যরা তখন পাশেই ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যান্ডের পক্ষ থেকেও ম্যাকভির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়। তবে মৃত্যুর কারণ প্রকাশ করা হয়নি। রয়টার্স

সত্তর ও আশির দশকে ‘ফ্লিটউড ম্যাক’ ছিল সারা পৃথিবীর অন্যতম সেরা রক ব্যান্ড। গীতিকার ও ভোকালিস্ট ক্রিস্টিন ম্যাকভি ছিলেন ব্যান্ডের অন্যতম সদস্য। ১৯৭০ সালে ব্যান্ডদলে যোগ দেওয়ার পর দ্রুতই ব্যান্ডটির জনপ্রিয় তারকা হয়ে ওঠেন ম্যাকভি। ‘এভরিহোয়ার’, ‘লিটল লাইস’, ‘ডোন্ট স্টপ’, ‘সে ইউ লাভ মি’, ‘সংবার্ড’-এর মতো বিখ্যাত গানের সঙ্গে জড়িয়ে আছে তার নাম। 

১৯৭৭ সালে মুক্তি পায় ফ্লিটউড ম্যাক ব্যান্ডের অ্যালবাম ‘রিউমারস’। চার কোটির বেশি বিক্রি হওয়া অ্যালবামটিকে সর্বকালের ব্যবসাসফল অ্যালবামগুলোর একটি বলে মনে করা হয়। ১৯৯৮ সালে ব্যান্ডটি ‘রক অ্যান্ড রোল হল অব ফেমে’ জায়গা পায়। 

ব্যান্ডের সঙ্গে নিজের একক অ্যালবামও প্রকাশ করেছেন ম্যাকভি। ১৯৭০ ও ১৯৮৪ সালে প্রকাশিত তার দুই অ্যালবাম ‘ক্রিস্টিন পারফেক্ট’ ও ‘ক্রিস্টিন ম্যাকভি’ সাড়া জাগানো সাফল্য পায়। নব্বই দশকের শেষ দিকে ব্যান্ড থেকে আলাদা হয়ে যান ম্যাকভি। তবে সাময়িক এ অবসর ভেঙে প্রায় ১৫ বছর পর আবারও ২০১৪ সালে ফিরে আসেন। 

১৯৪৩ সালের ১২ জুলাই ল্যাঙ্কাশায়ারে জন্ম ক্রিস্টিন ম্যাকভির। মাত্র ৪ বছর বয়সে পিয়ানো শেখা শুরু, ১১ বছর বয়সে গানকে সিরিয়াসলি নেন। তবে গায়িকা হবেনই এমনটা ভাবেননি। আর্ট স্কুলে পড়তেন, ঠিক করে রেখেছিলেন শিক্ষকতা করবেন। 

ম্যাকভি ছিলেন সত্তর ও আশির দশকের পপ সংগীতের অন্যতম ব্যক্তিত্ব। যেমন গাইতেন, তেমনি দুর্দান্ত ছিল লেখার হাত। ম্যাকভির মৃত্যুতে বিশ্বসংগীতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। সম্পাদনা: খালিদ আহমেদ

 এএ/কেএ/এএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়