শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০:০৩ রাত
আপডেট : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০:০৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

জবি ফিল্ম ক্লাবের আয়োজনে চলছে চতুর্থ সিনেশো উৎসব

জবি প্রতিনিধি: [২] জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে চতুর্থ সিনেশো উৎসব-২০২৪। জবি ফিল্ম ক্লাবের আয়োজনে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি 'মুজিব: একটি জাতির রুপকার' চলচ্চিত্র প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর নিয়মিত বড় আয়োজনের এবারের যাত্রা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়। 

[৩] চতুর্থ সিনেশো উৎসবটি তিন ভাগে বিভক্ত। প্রথম ভাগে প্রদর্শিত হয়েছে সম্প্রতি আলোচিত নয়টি পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলাদেশি চলচ্চিত্র। 

[৪] চলচ্চিত্র গুলো হচ্ছে-শ্যাম বেনেগাল নির্মিত 'মুজিব: একটি জাতির রুপকার', রায়হান রাফী নির্মিত 'সুড়ঙ্গ', এস কে শুভ সাদিক নির্মিত 'কিওরি পেক্রা উয়্যু', মোস্তফা সরয়ার ফারুকী নির্মিত 'সামথিং লাইক এন অটোবায়োগ্রাফি', আসিফ আকবর নির্মিত 'এম আর-৯: ডু অর ডাই', দীপংকর দীপন নির্মিত 'অন্তর্জাল', ব্রাত্য বসু নির্মিত 'হুব্বা', মিজানুর রহমান আরিয়ান নির্মিত 'উনিশ ২০', এবং চয়নিকা চৌধুরী নির্মিত 'প্রহেলিকা'।

[৫] দ্বিতীয় অংশে প্রদর্শিত হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নির্মিত ২০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্র গুলো হচ্ছে- মহিউদ্দিন আল আরাবী নির্মিত 'দ্য সানফ্লাওয়ার', আফিফা আক্তার নির্মিত 'কালারস অব দ্য সোল', শাহ্‌ সাকিব সোবহান নির্মিত 'বিয়ে বাড়ির মিষ্টি', জাকির হাসান অনিক নির্মিত 'পেপার', রেজোয়ান মাহিদ নির্মিত 'ফার্স্ট', অনন্ত ইসলাম নির্মিত 'ফ্লাইট', অনিকেত রয় নির্মিত 'লস্ট ইন ইউর ট্রাঞ্জিশন', ধ্রুব সেন নির্মিত 'লাভ পাণ্ডা', আবু মুসা আসারি নির্মিত 'সেটল দ্য স্কোর',তাসনোভা তাবাসসুম নির্মিত 'টিপস', রাবী আহমেদ নির্মিত 'মনোবাণ', সাদমান শিহির নির্মিত 'সিটি ডায়েরিজ', রুদ্র ব্যানার্জী নির্মিত 'সেকেন্ড টাইমার', ক্কিমিয়া শাআদাত নির্মিত 'গল্পকথন', জাহিদুল ইসলাম নির্মিত 'এওয়াকেনিং', তৌফিক মেসবাহ নির্মিত 'চেকমেট', মৃত্তিকা রাশেদ নির্মিত 'দ্বৈরথ', সুমাইয়া আফরিন মৌমিতা নির্মিত 'অবশেষে', আসিফ তানজির নির্মিত 'রিভার অ্যান্ড ফ্রেন্ডশিপ' এবং রওনাকুর সালেহীন নির্মিত 'দেশি ভূতের গাল গপ্পো'।

[৬] উৎসবে ২০ টি চলচ্চিত্রের মধ্যে 'ফার্স্ট', 'লাভ পাণ্ডা', 'সেটল দ্য স্কোর', 'সেকেন্ড টাইমার', 'এওয়াকেনিং' এবং 'রিভার অ্যান্ড ফ্রেন্ডশিপ' মোট ৬টি চলচ্চিত্রের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয়। বিশটি চলচ্চিত্র গত ২৭ এবং ২৮ ফেব্রুয়ারি দুই ভাগে প্রদর্শিত হয়। পাশাপাশি নির্মাতাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।  
 
[৭] তৃতীয় অংশ হিসেবে গত বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) আয়োজিত হয়েছে চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদান এবং ফিল্ম সেন্সর সার্টিফিকেশন বিষয়ক কর্মশালা। কর্মশালা আয়োজন করতে সহায়তা করেছে বাংলাদশ ফিল্ম স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন। কর্মশালাটি পরিচালনা করেছেন সরকারি অনুদান প্রাপ্ত নির্মাতা এবং শিক্ষক জনাব এন. রাশেদ চৌধুরী।  

[৮] জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বড় এই চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা নামবে আগামী শুক্রবার (১ মার্চ)।

[৯] সার্বিক বিষয়ে জবি ফিল্ম ক্লাবের সভাপতি তানভীর আহমেদ বলেন, ফিল্ম ক্লাব প্রতিবছর নানা কর্মসূচি গ্রহণ করে থাকে। তন্মধ্যে বছরে দুটি সিনেশো আয়োজনের উদ্যোগ নেয়। পাশাপাশি জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস পালন, চলচ্চিত্র বিষয়ে পাঠচক্র, ক্লাসিক ফিল্ম নিয়ে আলোচনা, বিখ্যাত চলচ্চিত্রকারদের স্মরণে স্মারক বক্তৃতার আয়োজন এবং চলচ্চিত্র নির্মাণের বিভিন্ন কর্মশালা করে থাকে সংগঠনটি। এবছর সিনেশোতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নির্মিত ২০ টি স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও সাম্প্রতিক নির্মিত জনপ্রিয় ৯টি সিনেমা প্রদর্শিত হচ্ছে।

[১০] প্রসঙ্গত, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ফিল্ম ক্লাব প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকল সদস্যের মাঝে চলচ্চিত্র স্বাক্ষরতা বৃদ্ধির চেষ্টা করে আসছে। এছাড়াও স্বাধীন ও সুষ্ঠু ধারার চলচ্চিত্রের দর্শক সচেতনতার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি। সম্পাদনা: এ আর শাকিল

প্রতিনিধি/এআরএস

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়