শিরোনাম
◈ গাজায় যুদ্ধবিরতি হলেও হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে হামলা বন্ধ হবে না:ইসরায়েল ◈ চার মাসের মধ্যেই প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ◈ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের দিবসটির গুরুত্ব বাড়াতে সরকার কার্যকর উদ্যোগ নেবেন, আশা জি এম কাদেরের ◈ সরকার সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে না: আইনমন্ত্রী ◈ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে অপতথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে ইসরায়েল: লুলা দা সিলভা ◈ গ্রামীণ টেলিকমসহ তার প্রতিষ্ঠানগুলোর লভ্যাংশ কাউকে দেয়া যায় না: ড. ইউনূস   ◈ মুখ খুলে মানুষ গণতন্ত্রের কথা বলতে পারছে না: ড. ইউনূস  ◈ স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারী, ২০২৩, ০৬:২৮ বিকাল
আপডেট : ২৪ জানুয়ারী, ২০২৩, ০১:০০ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রমজানে ভোগ্যপণ্যের দাম ৩০ শতাংশ বাড়বে

জেরিন আহমেদ : আমদানি করা ভোগ্যপণ্যের দাম গত রমজানের তুলনায় এবার ৩০ শতাংশ বেশি হবে বলে জানিয়েছে ট্যারিফ কমিশন । সময় টিভি, যমুনা টিভি

সোমবার জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে এ কথা জানিয়েছে ট্যারিফ কমিশন। 

ট্যারিফ কমিশনের উপ-প্রধান মাহমুদুল হাসান বলেন, ডলারের দাম বেড়ে যাওয়া ও আন্তর্জাতিক বাজার পরিস্থিতির কারণে আমদানি করা ভোগ্যপণ্যের দাম গত রমজানের তুলনায় এবার ৩০ শতাংশ বেশি থাকবে। 

এদিকে ভোক্তার ব্যয়ের বোঝা হালকা করতে ভোগ্যপণ্যের শুল্কহার কমানোর সুপারিশ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি জানিয়েছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক এ এইচ এম সফিকুজ্জামান।

তিনি বলেন, এ বৈঠকে আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের এখান থেকে একটি সুপারিশ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। সেখান থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হবে।

বৈঠকে চাহিদা-জোগানের সঠিক হিসাব রেখে বাজার তদারকির ওপর গুরুত্ব দেন আলোচকরা। এদিন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন সরকারি কর্মকর্তারা। যেখানে বাজার কারসাজির হোতা হিসেবে বড় ব্যবসায়ীদের দায়ী করেন খুচরা ব্যবসায়ীরা।

 আমদানিকারকরা জানালেন, এলসি (ঋণপত্র) স্বাভাবিক না হলে রমজান মাসে পণ্যের সরবরাহ আর দরদামে সমস্যা হবে। আমরা যদি ঠিকমতো এলসি না পাই, তাহলে সমস্যা হতে পারে। এখন ১০০ শতাংশ মার্জিন দিয়ে সবকিছু আমদানি করার কথা বলা হচ্ছে, এটি কিন্তু ঠিক নয়।

এ সময় ভোক্তার অধিকার নিয়ে কাজ করা সংগঠন দ্য কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) বক্তব্যে উঠে আসে কীভাবে করপোরেট প্রতিষ্ঠানের মুঠোবন্দি হয়ে যাচ্ছে দেশের ভোগ্যপণ্যের বাজার।

ক্যাব বলেছে, এখন করপোরেট ব্যবসার নামে কোম্পানিগুলো মনোপলি তৈরি করে রেখেছে। আমদানি বাজারে মনোপলির মাধ্যমের পণ্য আটকে রেখে বাজারের অবস্থা বুঝে পণ্য ছাড় করার যে প্রবণতা, এই জায়গাটি আসলে খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। 

প্রতিনিধি/জেএ

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়