শিরোনাম

প্রকাশিত : ০২ এপ্রিল, ২০২৪, ০৫:৪০ বিকাল
আপডেট : ০২ এপ্রিল, ২০২৪, ০৫:৪০ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

উচ্চ বেতনে চাকরির প্রলোভনে মালয়েশিয়া নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগে মামলা

তপু সরকার হারুন, শেরপুর: [২] মালয়েশিয়ায় উচ্চ বেতনের চাকরি প্রদানের কথা বলে আটকে রেখে নির্যাতন ও প্রতারণার অভিযোগে শেরপুর সদর উপজেলার কুঠুরাকান্দা গ্রামের আরশাদ আলীর ছেলে আল আমিনের (৩২) বিরুদ্ধে আদালতে মানব পাচার ট্রাইবুনালে অভিযোগ দায়ের করেছেন একই গ্রামের সাজিবুর রহমান (২৮) নামে এক ভুক্তভোগী।

[৩] অভিযোগ সূত্র ও ভুক্তভোগী যুবক সাজিবুর জানান, প্রতারক আল আমিন মালয়েশিয়া নিয়ে উচ্চ বেতনে চাকরি দিবে বলে আমার কাছ থেকে ৪ লাখ ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে গত বছরের ৩০ জুলাই আমাকে মালয়েশিয়ায় নিয়ে দালাল চক্রের কাছে বিক্রি করে দেয়। তারা আমিসহ আরও ২১ জনকে একটি কক্ষে তিন মাস আটকে রেখে অমানুষিক নির্যাতন করে। আরও ১ লাখ টাকা না দিলে হত্যার হুমকি দেয়। পরে মালয়েশিয়া প্রবাসী বজলু নামে এক ব্যক্তির সহায়তা দেশে ফিরে আসি। 

[৪] তিনি আরও বলেন, দালাল আল আমিনের কাজই হচ্ছে মানুষের সাথে প্রতারণা করা। সে কুঠারাকান্দা গ্রামের প্রায় ২০ থেকে ৩০ জন লোকের সাথে এমন প্রতারণা
করেছে।

[৫] ওই গ্রামের আরেক বাসিন্দা ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আ. বারেক জানান, আলামিন তার মেয়ের জামাইয়ের সাথেও এমন প্রতারণা করেছে। এখন সব হারিয়ে তার মেয়ের পরিবার নিঃস্ব হয়ে গেছে। কেও কোন কিছু বললেই হুমকি ধামকি দেয়।

[৬] কুঠুরাকান্দা গ্রামের মো: করিম বলেন, আলামিন দেশ থেকে লোক নিয়ে মালয়েশিয়ায় পাসপোর্ট জব্দ করে তার নিকট রেখে শ্রমিকদের বেতন হাতিয়ে নেয়। সে এই প্রতারণার কাজ করে অঢেল সম্পত্তির মালিক হয়েছে। আগে টিনের চালা ঘরে থাকলেও এখন দ্বিতল বিশিষ্ট একটি পাকা বাড়ি নির্মাণ করেছে। বিদেশে শ্রমিক নিয়ে উচ্চ বেতনে চাকরির কথা বলে প্রতারণা করাই তার কাজ।

[৭] বলায়েরচর ইউনিয়নের জঙ্গলদি গ্রামের নাপিতের কাজ করেন হাসু মিয়া। তার সাথেও প্রতারণা করেছে আলামিন এমন অভিযোগ হাসু মিয়ার। তিনিও ৪ লাখ ৬৫ হাজার টাকা দিয়ে মালয়েশিয়া যান। সেলুন দিয়ে দিবে বলে নিয়ে গেলেও তাকেও আটকে রেখে নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করান বলে অভিযোগ করেন হাসু মিয়া। পরে বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে দেশে ফিরে আসেন।

প্রতিনিধি/একে

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়