শিরোনাম
◈ বিএনপিতে শুদ্ধি অভিযান শুরু, সরকারের সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগে ফেঁসে যাচ্ছেন শতাধিক নেতা  ◈ তুরস্কে কন্ট্রাক্ট ফার্মিংয়ে বাংলাদেশি কৃষিবিদ ও কৃষক নিয়োগের প্রস্তাব  ◈ ফুটপাত থে‌কে জ্বলন্ত চুলা ও সিলিন্ডার সরা‌লো পু‌লিশ, আটক ৮  ◈ প্রধানমন্ত্রীকে বড়পীর আব্দুল কাদের জিলানীর (র.) মাজার জিয়ারতের আমন্ত্রণ ◈ রাজধানীজুড়ে রেস্তোরাঁয় পুলিশি অভিযান, আটক ৩৫ ◈ প্রবাসী আয়ে চমক, ৮ মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স ফেব্রুয়ারিতে ◈ রমজানে সৌদি আরবে মাইক ব্যবহার ও সম্প্রচার সীমিত করে ৯ দফা নির্দেশনা ◈ পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ◈ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড হাইকোর্টে রিট দায়ের ◈ গাজায় মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ বন্ধে ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগের আহবান বাংলাদেশের

প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর, ২০২৩, ০৮:৪১ রাত
আপডেট : ৩০ নভেম্বর, ২০২৩, ০৮:৪১ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বরগুনায় শমভুর আসনে লড়ছেন ১১ জন

সাগর আকন, বরগুনা: [২] বরগুনা-১ আসনে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে পাঁচ বারের সংসদ সদস্য একবার মন্ত্রী ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভুর আসনে এবার দলের তিন বিদ্রোহী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। 

[৩] বৃহস্পতিবার প্রথম ভাগে বরগুনার জেলা প্রশাসক ও জেলা রির্টার্নিং কর্মকর্তা মোহা: রফিকুল ইসলামের দপ্তরে মনোনয়ন দাখিল করেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভু। ওই দিন দুপুরে মনোনয়ন দাখিল করেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম সরোয়ার টুকু ও মো: খলিলুর রহমান। সহকারী রির্টার্নিং কর্মকর্তা আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আশ্রাফুল আলমের দপ্তরে মনোনয়ন দাখিল করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম সরোয়ার ফোরকান।

[৪] জানা যায়, বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভু ১৯৯১/ ১৯৯৬/ ২০০৮/ ২০১৪/ ২০১৮ সালে  বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালে মনোনয়ন পেলেও দলের বিদ্রোহী প্রার্থী মো: দেলোয়ার হোসেনের নিকট সামান্য ভোটে পরাজিত হন। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে বরগুনা-১ আসন থেকে দলীয় ফরম সংগ্রহ করেন ২২ জন। ২৬ নভেম্বর সভানেত্রী শেখ হাসিনা ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভুকে মনোনয়ন দিয়েছেন। ওই  ২২ জনের মধ্য বিদ্রোহী তিনজন মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। 

[৫] বৃহস্পতিবার মনোনয়ন দাখিল করেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে (১) ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভু, জাতীয় পার্টি থেকে (১) মো: খলিলুর রহমান, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন থেকে (৩) শাহ মো: আবুল কালাম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি থেকে (৪) মাহবুবুর রহমান, জাকের পার্টি থেকে (৫) মো: জাহাঙ্গীর কবির, বিএনএম থেকে (৬) মো: মাসুদ কামাল, তৃনমুল বিএনপি থেকে (৭) মো: ইউনুস সোহাগ, স্বতন্ত্র (৮) গোলাম সরোয়ার টুকু, (৯) মো: খলিলুর রহমান, (১০) গোলাম সরোয়ার ফোরকান ও (১১) মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। 

[৬] আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোলাম সরোয়ার টুকু বলেন, মাননীয় সভানেত্রী নির্বাচন করতে নিষেধ করেননি। তারপরও দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে আমি নই। দল সিদ্ধান্ত না দিলে আমার শরীরে একবিন্দু রক্ত থাকতে নির্বাচন থেকে সরে যাব না। তৃনমুল বিএনপি প্রার্থী মো: ইউনুস সোহাগ বলেন, বরগনা-১ আসনে ক্ষমতার পরিবর্তন চায়। আমি আশা করি আমাকে সবাই ভোট দিবে। আমি নির্বাচিত হলে বরগুনার উন্নয়ন করতে পারব। গোলাম সরোয়ার ফোরকান বলেন বলেন, বরগুনা-১ আসন বরগুনা সদর, আমতলী ও তালতলী উপজেলা নিয়ে। বরগুনা থেকে আমতলী ও তালতলী আসতে হলে পায়রা নদী পাড় হয়ে আসতে হয়। দুই উপজেলায় ভোট বেশী। এবার আমতলী ও তালতলীর মানুষ আমাকে ভোট দিবেন। আমতলী ও তালতলী আসন থেকে একবার নির্বাচন করেছিলাম। জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছে। বিএনপি ভোট কেটে নিয়েছে। কেন বিদ্রোহ করে নির্বাচন করেন। তিনি বলেন, নেত্রী সবাই নির্বাচন করতে বলেছেন। তাই নির্বাচন করি। 

[৭] ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভু বলেন, দল আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমি আশা করি দলের সবাই আমার তথা আওয়ামী লীগের সঙ্গে থেকে নির্বাচন করবেন। রাগ অভিমান থাকতে পারে। কিন্তু সবার চেয়ে দল বড়। আমি আশা করি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে কোন বিদ্রোহ থাকবে না। আমরা সবাই এক সঙ্গে কাজ করব। আমাকে যদি এবার মনোনয়ন না দিতেন। যাকে দিতেন তার হয়ে আমি কাজ করতাম। সম্পাদনা: এ আর শাকিল

প্রতিনিধি/এআরএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়