শিরোনাম
◈ সুলতানস ডাইন রেস্টুরেন্ট সিলগালা করলো রাজউক ◈ ব্রহ্মপুত্রের বালুতে হাজার হাজার কোটি টাকার খনিজ সম্পদের সন্ধান ◈ সদ্য কারামুক্ত বিএনপি নেতা আমিনুল হকের বাসায় মঈন খান  ◈ জারদারি নাকি আচাকজাই, কে হবেন পাকিস্তানের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট ◈ [১] মিয়ানমারের রাখাইনে আরেকট সেনাঘাঁটি  দখল করেছে আরাকান আর্মি  ◈  নাশকতার মামলায় দণ্ডিত বিএনপি নেতা হাফিজ উদ্দিন কারাগারে ◈ দুইটি বিদেশি পিস্তল, ৮১ রাউন্ড গুলিসহ সেই শিক্ষক গ্রেপ্তার ◈ আর্মি যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা ◈ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজে স্বাস্থ্য বিভাগের তদন্ত দল ◈ রাজাকারের নতুন তালিকা দুই ভাগে ভাগ করা হবে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী 

প্রকাশিত : ৩১ জানুয়ারী, ২০২৩, ০৮:২৯ রাত
আপডেট : ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:৫৩ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মনু নদীর চরে সফল চাষের বিপ্লব, কৃষকের মুখে হাসি

মনু নদীর চরে সবজি চাষ

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারে তিনটি উপজেলার মনু নদীর বেড়িবাঁধে নানা সবজি চাষে কৃষকরা লাভের মুখ দেখছেন। একদিকে সবুজ শাক সবজি অন্যদিকে সরিষার হলুদেফুল  গোটা এলাকার চিত্র পাল্টে দিয়েছে। নদীর বেড়িবাঁধে শ’ শ’ একর জমিতে টমেটো, বেগুন, আলু,  বাঁধাকপি, ফুলকপি ও সরিষাসহ বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ করেছেন এলাকার কৃষকরা। এখন তাদের ব্যস্ত সময় কাটছে, কেউ ফসল তুলে সময় পাড় করছেন। 

মঙ্গলবার সকালে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জের আদমপুর, ভান্ডারীগাঁও, তিলকপুর গ্রামে গেলে সবুজের সমারোহ দেখা যায়। এই এলাকার মৌসুমী ফসলের চাহিদা রয়েছে সিলেট বিভাগ জুড়ে। শীতকালিন বাঁধাকপি, ফুলকপিসহ বিভিন্ন সবজি সুস্বাদু হওয়ায় ক্রেতাদের কাছে এই এলাকার চাহিদাও বেশি। এতে ক্রেতা বিক্রেতা উভয়পক্ষই লাভবান হচ্ছেন জানালেন এলাকাবাসী।

কুলাউড়া, রাজনগর ও মৌলভীবাজার বাজার সদর উপজেলার প্রায় ১০-১২ টি ইউনিয়নের নদী তীরবর্তী গ্রামে গ্রামে  শাক-সবজি ও মৌসুমী ফল চাষের এই চিত্র দেখা গেছে।

নিজে জমিতে টমেটো বাগানে কাজ করেন কুলাউড়ার হাজীপুর ইউনিয়নের সাধনপুর গ্রামের কৃষক মুহিবুর রহমান। তিনি জানান, এ ইউনিয়নের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে মনু নদী। ভারতের ত্রিপুরার পাহাড় থেকে নেমে আসা পাহাড়ি এ মনু নদী দিয়ে প্রতি বছর ফসলি জমিতে প্রচুর পলিমাটি জমা হয়, চরের মাটি বেলে দোঁআশ, ফলে জমিগুলো অনেক উর্বর যেখানে সবজির ভালো ফলন হয়। 

কৃষি বিশেষজ্ঞদের মতে, এ মাটিতে রাসায়নিক সার প্রয়োগ না করেও আখ, ধান, সরিষা, তিল, তিষি ডালসহ সব ধরনের শাক সবজি লাগানো যায়। আর ফলন হয় অন্য জমির থেকে দুই তিন গুণ বেশি।
কৃষক রমিজ মিয়া জানান, মনু নদীর সবজি চাষ করে কাউকাপন হরিচক সাধনপুর ফুলপুর উত্তর বাড়ইগাও দক্ষিণ বাড়ইগাও কটারকোনা মন্দিরা সহ মনু নদীর দুই পাড়ের অসংখ্য কৃষক নিজেদের অভাব গুছিয়েছেন। এমনকি অনেক কৃষককের সন্তানকে বিদেশে পাঠানো, নিজেদের ঘরবাড়ি তৈরি ও জমি জমা ক্রয় করছেন।

স্থানীয় কৃষকরা অভিযোগ করেন, এলাকার মানুষ সরকারি সহায়তা খুব বেশি পাননা। কৃষি বিভাগের কর্মীরা কৃষকদেরকে সঠিক পরামর্শ ও সহায়তা করলে মনু নদীর দুই পারে ডাল, সরিষাসহ শাক সবজির চাষে পালটে যেতো গ্রামীণ অর্থনীতি।

মৌলভীবাজার জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার জেলার উপ পরিচালক শামসুদ্দিন আহমেদ এই অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, চলতি মৌসুমে মৌলভীবাজার জেলার ৭ উপজেলায় ২ হাজার ৬২৭ হেক্টর জমিতে আলু, ১৪০ হেক্টর জমিতে গম ৫৩ হেক্টর জমিতে ডাল, ৪ হাজার ৪৭৫ হেক্টর জমিতে সরিষা, এবং ১১ হাজার ৮৩ হেক্টর জমিতে অন্য সবজি চাষাআবাদ করা হয়েছে।

সকল প্রকার সহযোগিতার জন্য স্থানীয় কৃষি কর্মকর্তারা সর্বদা প্রস্তুত রয়েছেন, তারা নিয়মিত এলাকায় গিয়ে কৃষকদেরকে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। 

প্রতিনিধি/জেএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়