শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ০৬:০৬ বিকাল
আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ০৬:২৪ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১] মৌসুমী-শাকিবকে নিয়েও আপত্তিকর মন্তব্য করেছিলেন মুরাদ

মিনহাজুল আবেদীন: [২] তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান মঙ্গলবার পদত্যাগপত্র তার দপ্তরে পাঠিয়েছেন। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগের কথা উল্লেখ করা হয়েছে পদত্যাগপত্রে। প্রতিমন্ত্রী থাকাকালে নানান সময়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে আলোচনায় ছিলেন সাবেক এ প্রতিমন্ত্রী। চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা ও ভয়ভীতি দেখানো ছাড়া ডা. মুরাদ হাসান ঢালিউডের দুই জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পীকে নিয়েও মানহানিকর মন্তব্য করেন। প্রথম আলো

[৩] একটি সংবাদ সম্মেলনে বর্তমান সরকারের এই মন্ত্রী চিত্রনায়িকা মৌসুমীর শারীরিক গঠন নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। আরেকটি সংবাদ সম্মেলনে ঢালিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খানকে নিয়েও আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। একটি সংবাদ সম্মেলনে মুরাদ হাসান বলেছেন, শাকিব খান তেলাপোকার মতো অভিনয় করেন!

[৪] ঢালিউডে মৌসুমীর অভিষেক হয় পরিচালক সোহানুর রহমান সোহানের ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। নব্বই দশকের শুরু থেকে বাঙালি দর্শকের কাছে মৌসুমী প্রিয় একটি নাম। মৌসুমীর শারীরিক গঠন নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান কটাক্ষ করেন সোহানেরই রাজকুমার নামের একটি চলচ্চিত্রের মহরত অনুষ্ঠানে। সময় নিউজ

[৫] দেশের চলচ্চিত্রের এমন এক অভিনয়শিল্পীকে শারীরিকভাবে কটাক্ষ করায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত কাউকে প্রতিবাদ করতে দেখা যায়নি। তবে ফেসবুকে এ নিয়ে ভক্তরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। মুরাদ হাসান সেদিন তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘মৌসুমী ভালো করছে, শুধু ওয়েটটা কমাতে হবে। ফিল্মে যাঁরা অভিনয় করবেন, তাঁদের আমি হাতজোড় করে অনুরোধ করছি, ওয়েটটার দিকে একটু নজর দিন। ‘রাজকুমারী’ চলচ্চিত্রের জন্য যে ছেলেকে নেওয়া হয়েছে, সে ফিট, গুড লুকিং ও হ্যান্ডসাম এবং ‘রাজকুমারী’র জন্য যে মেয়েকে নির্বাচন করেছেন সোহান ভাই, আমাকে ছবি দেখিয়েছেন, সে ও ফিট।’

[৬] সেদিনের অনুষ্ঠানে মুরাদ হাসান বলেন, ‘আমি চলচ্চিত্রের অনুষ্ঠানে আসতে চাই না। কারণ, বিতর্ক তৈরি হয়। মাঝে তো বিতর্কের চোটে ফিল্মপাড়ায় পা দেওয়া মানেই আগুনে ঝাঁপ দেওয়ার মতো। তাই আমি সবাইকে অনুরোধ করছি, স্ক্যান্ডাল থেকে দূরে থাকতে।’ মৌসুমীর এই ঘটনার কিছুদিন পরই শাকিবকে খোঁচা দিতে গিয়ে ভক্তদের প্রতিবাদের মুখে পড়েন মুরাদ হাসান। তবে উল্লেখ করতে হয়, মৌসুমী ও শাকিব খানকে নিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর আপত্তিকর মন্তব্যে বিনোদন অঙ্গনের কোনো তারকাকে প্রতিবাদ করতে দেখা যায়নি!

[৭] শাকিব খানকে নিয়ে যেদিন মানহানিকর বক্তব্য দেন, সেদিন তিনি বলেছিলেন, ‘আমাদের দেশে কিন্তু ভালো ছবি খুবই কম নির্মাণ হচ্ছে। একটু আগে আমি সোহান ভাইকে বললাম, শাকিবকে দেখলে অনেক সময় আমি দুষ্টামি করে বলি, এই, তুই তো অভিনয় জানোস না। তুই তো শুধু লাফাস।’

[৮] সেই অনুষ্ঠানে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর দাবি ছিলো, শাকিব তাকে বলেছেন, এসব বলে তিনি যেন তাঁর মার্কেটটা নষ্ট না করেন। এরপর তিনি বলেছেন, বিষয়টা হলো যে এটা মার্কেট খাওয়ার ব্যাপার না। সিনেমা যদি কেউ দেখে, তার মধ্যে উপজীব্য কিছু যদি না থাকে, স্টোরি, কাহিনি না থাকে, তো তুমি শুধু লাফাইতেছ, নাচতেছ, গান গাইতেছ তেলাপোকার মতো এটা তো উপভোগ করার চেয়ে পেইন লাগে। এই যে পেইন, এটা থেকে মুক্ত হতে চাই।’
তথ্য প্রতিমন্ত্রীর এই দিনের বক্তব্যের সময়ও উপস্থিত ছিলেন পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান। এদিন আরও দেখা গেছে পরিচালক রশিদ পলাশকে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়