প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আপত্তিকর অবস্থায় ধরা, দুই পুলিশের দোষ তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন

আবুল কাশেম : [২] সিলেটে আদালত পাড়ায় নারী কনস্টেবল ও কোর্ট পুলিশ পরিদর্শকের ঘটনাটি তদন্তে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

[৩] ইতোমধ্যে পরিদর্শক প্রদীব কুমার দাস ও সেই নারীকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।

[৪] সিলেটে আলোচিত পুলিশ পরিদর্শক প্রদীপ কুমার দাসের বিরুদ্ধে নারী কর্মকর্তার সাথে দুর্ব্যবহার, উপ-পরিদর্শকদের কাছ থেকে নানা অজুহাতে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। সরকারি কৌসুলির সাথেও করেছেন খারাপ আচরণ।

[৫] অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যাকান্ডের পর কক্সবাজার থেকে বদলি সূত্রে সিলেট মহানগর পুলিশ (এসএমপি)- তে যোগ দেন পুলিশ পরিদর্শক প্রদীপ কুমার দাস পিপিএম। সিলেটে যোগদানের পরও চালিয়ে যান একের পর এক অপকর্ম। সর্বশেষ গত বুধবার রাতে এসএমপি’র জনৈক কনস্টেবলের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় তাকে পাওয়া যায়।

[৬] সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফ জানিয়েছেন, বর্তমানে তদন্ত কার্যক্রম চলছে। ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটি সদস্যরা প্রতিবেদন জমা দেবেন। প্রতিবেদনটি আমরা পুলিশ সদর দপ্তরে পাঠিয়ে দেব। পরিদর্শক প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা। তার বিরুদ্ধে পুলিশ সদর দপ্তর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। প্রতিবেদনের ভিত্তিতে কনস্টেবলের বিরুদ্ধে এসএমপি থেকে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সম্পাদনা: খালিদ আহমেদ

 

সর্বাধিক পঠিত