প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আজ হানাদারমুক্ত হয় যেসব জেলা

নিউজ ডেস্ক: ৬ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এ দিনে বীর মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে মেহেরপুর, ফেনী ও সুনামগঞ্জ দখলমুক্ত করেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

মেহেরপুর : স্বাধীনতার সূতিকাগারখ্যাত মুজিবনগর তথা মেহেরপুর মুক্ত দিবস আজ। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাজধানী মেহেরপুর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী মুক্ত হয়। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিরোধের মুখে ৫ ডিসেম্বর গভীর রাত থেকে হানাদার বাহিনী গোপনে মেহেরপুর ছেড়ে পালাতে শুরু করে। হানাদারদের শক্তিশালী সামরিক বলয় একে একে ভেঙে পড়ে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা হামলায়। ৬ ডিসেম্বর ভোরে মিত্র বাহিনী মেহেরপুরে প্রবেশ করলে অবরুদ্ধ জনতা মিত্র বাহিনীর সঙ্গে মেহেরপুর বিজয়ের উল্লাস করে।

১৯৭১-এর ৩ ডিসেম্বর রাতে মেহেরপুর শহর চারপাশ থেকে মু্ক্তিযোদ্ধারা ঘিরে হানাদার বাহিনীর ক্যাম্পগুলোতে একই সময়ে হামলার পরিকল্পনা গ্রহণ করে। ৬ ডিসেম্বর সকালে ব্রিগেডিয়ার জৈল সিংয়ের নেতৃত্বে মুক্তিবাহিনীর বিশাল বহর মেহেরপুর শহরে প্রবেশ করে। তার আগেই মেহেরপুর ছেড়ে পালিয়ে যায়। সেই দিনের স্মরণে মেহেরপুর সরকারি কলেজ মোড়ে স্থাপিত হয় মুক্তিযুদ্ধের শহীদ স্মৃতিসৌধ। প্রতি বছর এ দিনে শহীদ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জালির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হয়।

ফেনী : আজ ফেনী মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এ দিনে ২ নম্বর সেক্টরের অধীন ফেনী জেলা (তত্কালীন ফেনী মহকুমা) বর্বর পাকিস্তানী বাহিনী ও তাদের দোসরদের কবল থেকে মুক্ত হয়। ফেনীতে বিজয়ের পতাকা ওড়ান বীর মুক্তিযোদ্ধারা। ফেনীর বিলোনিয়ার সম্মুখযুদ্ধটি দেশের স্বাধীনতা অর্জনের ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে রয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধাদের তুমুল আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পাক হানাদাররা ৫ ডিসেম্বর রাতে কুমিল্লার দিকে পালিয়ে যায়। ৬ ডিসেম্বর সকাল থেকে সশস্ত্র মুক্তিযোদ্ধারা ক্যাপ্টেন জাফর ইমামের নেতৃত্বে দলে দলে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিতে দিতে ফেনী শহরে প্রবেশ করেন।

দিবসটি উপলক্ষে জেলা প্রশাসন আয়োজন করেছে নানা আয়োজন। এছাড়া বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সংগঠন ফেনী জেলা শহরে আলোচনা সভা ও বিজয় শোভাযাত্রা বের করবে। বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন দিবসটি উদযাপনের নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

সুনামগঞ্জ : আজ সুনামগঞ্জ মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এ দিনে হানাদারমুক্ত হয় সুনামগঞ্জ। সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, দিবসটিতে জেলা প্রশাসন ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

সূত্র: বণিক বার্তা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত