প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মিন্নি বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ

সাগর আকন: [২] বরগুনার সেই আয়েশা সিদ্দিক্কা মিন্নি কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ অবস্থায় আছেন। শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

[৩] মিন্নির বাবা দাবি করেন, কয়েক মাস যাবত মিন্নির ঘাড়ে ব্যথা, লো প্রেশার ও দাঁতে ব্যথা নিয়ে মারাত্মক অসুস্থ। তিনি আরও বলেন, মিন্নি ঠিকমতো খেতে পারে না। ঘুমাতে পারে না। সব সময় অসুস্থ থাকে। তাই খুবই দুর্বল হয়ে গেছে। কারাগারের পানি পর্যন্ত খেতে পারে না। মিন্নির মুক্তির সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছেন বলেও তিনি জানান।

[৪] মিন্নিকে এক বছরেরও বেশি সময় দেখতে না পেরে কষ্ট নিয়ে মেয়েকে দেখার অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন মিন্নির মা।

[৫] তিনি স্বীকার করেন, দীর্ঘদিন কাশিমপুর কারাগারে অসুস্থ মিন্নিকে চিকিৎসা দিয়ে আসছেন কারা কর্তৃপক্ষ। তবে মিন্নির বাবার দাবি তাদের ওষুধে মিন্নি আরও অসুস্থ হয়ে পড়েছে। প্রধান বিচারপতির কাছে উন্নত চিকিৎসার আবেদন করলেও এখনো উন্নত চিকিৎসার নির্দেশ পাননি তারা।

[৬] মিন্নির মা জিনাত জাহান মনি বলেন, চোখের পানি ফেলতে ফেলতে দিন পার করছি। করোনার জন্য এক বছরের মধ্যে মিন্নির সাথে দেখাও করতে পারেননি তিনি।

[৭] উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২৬ জুন স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে কলেজে আনতে যান স্বামী শাহনেওয়াজ রিফাত শরীফ। আগে থেকেই হত্যার পরিকল্পনা করে কলেজের সামনে ওতপেতে থাকে নয়ন বন্ড বাহিনী। গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর বরগুনার দায়রা জজ আছাদুজ্জামান রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রাপ্ত বয়স্ক ১০ আসামির মধ্যে স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনকে ফাঁসির আদেশ দেন। এ মামলায় মোট আসামি ২৪ জন। বাকিদের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়। এরপর বরগুনা জেলা কারাগার থেকে মিন্নিকে গাজীপুরের কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। সেই থেকে ওই কারাগারেই রয়েছেন মিন্নি। ওই বছরই ২৭ অক্টোবর অপ্রাপ্ত বয়স্ক ১১ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেন শিশু আদালতের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান।

সর্বাধিক পঠিত