প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মহিবুল হাসান চৌধুরী: এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই সাঈদীকে চাঁদে দেখা গিয়েছিলো!

মহিবুল হাসান চৌধুরী : উন্মাদ বা পাগলও বিশ্বাস করবে না বাংলাদেশে দুর্গাপূজার কোনো মণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরীফের অবমাননা করার পরিকল্পিত ধৃষ্টতা পূজারীদের কেউ দেখাবে! সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব এবং রটনা ছড়ানো হয়েছে কুমিল্লার একটি দুর্গাপূজার মণ্ডপে পূজারীদের মাধ্যমে এই অবমাননাকর ঘটনা ঘটানো হয়েছে। (নাউজুবিল্লাহ!) এই কথার ওপরে ভিত্তি করে এখন চেষ্টা হচ্ছে সবাইকে উসকে দিতে। ভুলে গেলে চলবে না, এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই সাঈদীকে চাঁদে দেখা গিয়েছিলো! আর সেটা শুনে কিছু ‘উন্মাদ আর ছাগশিশু’র প্ররোচনায় একটি নির্দিষ্ট অরাজকতা সৃষ্টিকারী গোষ্ঠী রাস্তায় নামে! এখন একই চেষ্টায় আছে তারা।

আল্লাহতায়ালা সমগ্র মানবজাতির প্রতি অনুগ্রহস্বরূপ পবিত্র কোরআন দান করেছেন। এই বিষয়ে বর্ণিত আছে : ‘হে মানবজাতি! তোমাদের নিকট এসেছে তোমাদের প্রভুর পক্ষ থেকে উপদেশ। যা আরোগ্য অন্তরের ব্যাধির জন্য এবং পথনির্দেশ ও অনুগ্রহ মুমিনের জন্য।’ (সূরা ইউনুস : ৫৭)

কোরআনুল কারিমের কল্যাণ সাধারণভাবে সবার জন্য উন্মুক্ত। কোনো রটনাকারীর পক্ষে দাঙ্গা হাঙ্গামা করা যাবে, কোরআনের মর্যাদা রক্ষা নয়! আল্লাহর পবিত্র বাণীর সম্মান রক্ষা করবেন সবাই এবং আল্লাহতায়ালা নিজেই। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল নিদর্শন, কবি নজরুলের কুমিল্লায় তথাকথিত এই রটনাকে ঘিরে সাম্প্রদায়িক ঘৃণা ছড়ানোর নোংরামি যারা করছে, নানা মাধ্যমে উসকানিমূলক স্টাটাস যারা দিচ্ছে, হিংসাত্মক মন্তব্য যারা করছে, তাদের চিনে রাখুন। তারাই দাঙ্গা হাঙ্গামার এজেন্ট! বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে আছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশে পবিত্র কোরআন শরীফের অবমাননা যেমন কেউ করার ধৃষ্টতা দেখাবে না, কেউ এই কাজ করলে তার যথাযথ শাস্তি অবশ্যই নিশ্চিত করা হবে। পাশাপাশি, এই রটনাকে কেন্দ্র করে অরাজকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা কেউ করলে, তার উচিত জবাবও যথাযথভাবেই দেওয়া হবে! ইনশাআল্লাহ!
Mohibul Hassan Chowdhoury-র ফেসবুক পেজে লেখাটি পড়ুন।