প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যে তথ্য মিলেছে আনুশকার ডিএনএ টেস্টে

ডেস্ক রিপোর্ট: রাজধানীর মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ছাত্রী আনুশকা নূর আমিনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া তার শরীরে ‘ফরেন বডি’ ব্যবহারের আলামও পাওয়া গেছে। চাঞ্চল্যকর এসব তথ্যই পাওয়া গেছে ডিএনএ রিপোর্টে। পিবিআইয়ের তথ্য মতে, শিগগিরই দেয়া হবে এ মামলার চার্জশিট। নয়া দিগন্ত

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএসপি) আহসান হাবিব পলাশ  জানান, আনুশকা ধর্ষণ ও হত্যা মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে। খুব শিগগিরই এ মামলার চার্জশিট দেয়া হবে।

চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি আদালতের দেয়া নির্দেশ অনুযায়ী আনুশকার ডিএনএ টেস্ট করা হয়। আনুশকার ডিএনএ রিপোর্ট নিয়ে কাজ করার সময় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ছিলেন ডা: সোহেল মাহমুদ। তিনি বর্তমানে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান।

ডা: সোহেল মাহমুদ বলেন, ডিএনএ প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়েছে। এতে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। এর পাশাপাশি ফরেন বডি ইনট্রোডাকশানও পাওয়া গেছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ৭ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ওই শিক্ষার্থীর মা কর্মস্থলের উদ্দেশে বাসা থেকে বের হন। এক ঘণ্টা পর তার বাবাও ব্যবসায়িক কাজে বাসা থেকে বের হন। এরপর দুপুর পৌনে ১২টার দিকে ওই শিক্ষার্থী তার মাকে ফোন করেন এবং কোচিং থেকে নোট আনার কথা বলে বাসা থেকে বের হন। দুপুর ১টা ১৮ মিনিটের দিকে দিহান ওই শিক্ষার্থীর মাকে ফোন করে জানান যে, তার মেয়ে দিহানের বাসায় এসেছে। হঠাৎ অচেতন হয়ে পড়লে তাকে আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নেয়া হয়েছে।

স্কুলছাত্রীর মা হাসপাতালে পৌঁছে কর্মচারীদের মাধ্যমে জানতে পারেন, আসামি নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন। প্রচুর রক্তক্ষরণের কারণে অচেতন হয়ে পড়লে বিষয়টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য আসামি নিজেই তাকে আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে নিয়ে যান।

সর্বশেষ