প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আনোয়ারা কলেজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার, বিচারের দাবিতে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

এস.এম. সালাহ্উদ্দীন: [২] চট্টগ্রামের আনোয়ারায় আবদুল্লাহ আল মাসুম (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলার ইছামতি নোয়ারাস্তা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

[৩] নিহত আবদুল্লাহ আল মাসুম আনোয়ারা কলেজের এইচ এস সি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র এবং উপজেলার ৯নং পরৈকৌড়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড কৈয়খাইন গ্রমের মুহাম্মদ ইউছুপের দ্বিতীয় পুত্র।

[৪] মাসুমের পরিবার আনোয়ারা সদরে মোস্তাক মিয়া কলোনীতে ভাড়া বাসায় থাকেন। মাসুমের মরদেহ উদ্ধারের খবরে রবিবার সকালে এলাকালাবাসী একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে খুনের বিচার দাবী করেন।

[৫] মাসুমের পিতা মুহাম্মদ ইউছুপ জানান, আমার ছেলেকে সাগর দত্তের ছেলে দ্বীপ্ত দত্ত পূর্ব পরিকল্পিতভাবে খুন করেছে। তারা দুই জনই ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিল। গতকাল রাত সাড়ে ১০টায়ও একসাথে তারা দ্বীপ্ত দত্তের মোটর সাইকেলে করে ঘুরাফেরা করেছিল।

[৬] এ ব্যাপারে দ্বীপ্ত দত্তের বাড়িতে গেলে দ্বীপ্তের মা লাকী দত্ত বলেন, মাসুম আমার ছেলে সাথে বন্ধুত ছিল কিন্তু আমার ছেলে কোন দিনও মাসুমকে হত্যা করতে পারে এমন ছেলে নই। আমার ছেলে রাত্রে তার মামার বাসায় দাওয়াতে গেছে এখনো বাড়ীতে আসেনি। বন্ধুর মৃত্যুর খবর শুনে কেন আসে নাই জানতে চাইলে দ্বীপ্তের মা বলেন, আমার ছেলে মেরেছে বলে সবাই গুঞ্জন তুলেছে সেজন্য সে ভয়ে বাড়ীতে আসে নাই এখনো।

[৭] ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রঘুনাথ সরকার বলেন, আমার মনে হয় এটা হত্যাকান্ড। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম দিদারুল ইসলাম সিকদার বলেন, জানতে পেরেছি সে ব্যানার টাঙানোর জন্য রাত ১০টা হতে ১১টার দিকে বাশঁ কাটতে গিয়েছিল। বাঁশ বিদ্যুৎ তারের সাথে জড়িয়ে তার মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে জানা যাবে। যদি হত্যা হয়েও থাকে তাহলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। র্যাব-৭ এর সাব ইন্সপেক্টর শাহাদাৎ এর নেতৃত্বে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে একটি টিম।