প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পলাশবাড়ীতে পাচার কালে বিরল প্রজাতির প্রায় ৭ কোটি টাকা মূল্যের ৬ তক্ষক উদ্ধারসহ, আটক ৪

আরিফ উদ্দিন: [২] গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে পাচার কালে বিরল প্রজাতির প্রায় ৭ কোটি টাকার মূল্যের ৬টি তক্ষক উদ্ধারসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে গাইবান্ধা র‌্যাব-১৩ ক্যাম্প। এসময় জড়িত আরো ৬ জন পালিয়ে যায় বলে জানা যায়। এ ব্যাপারে পলাশবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

[৩] মামলার বিবরণ, র‌্যাব ক্যাম্প ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে র‌্যাব গাইবান্ধা ক্যাম্পের এসআই সশস্ত্র/৫৩ মো. আব্দুল কাদেরের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক টিম পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের বিশ্রামগাছী গ্রামে অভিযান চালায়।

[৪] এসময় মূল্যবান তক্ষক ৬টি উদ্ধারসহ পাচারকারী ৪ জনকে হাতে-নাতে গ্রেপ্তার করা হয়। র‌্যাব টিমের উপস্থিতি টের পেয়ে এসময় সুযোগ বুঝে তক্ষক পাচারকারীর অজ্ঞাত ৬ সদস্য পালিয়ে যায় বলে সূত্র জানায়।

[৫] গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, পলাশবাড়ী পৌরশহরের আমবাড়ী গ্রামের আ. কাদেরের ছেলে শাহজাহান (৪০), উপজেলার মহদীপুর ইউপির বিশ্রামগাছী গ্রামের ফজল হকের ছেলে ওছমান গণি (৪০), একই ইউপির পূর্বগোপালপুর গ্রামের আলম সরকারের ছেলে জাকির (২৬) এবং গ্রাম ও পিতা অজ্ঞাত শাহারুল ইসলাম (৩৫)। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাব ১৩ ক্যাম্পের কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুর রাজ্জাক খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

[৬] তিনি জানান, সর্বোচ্চ মূল্যে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অতি গোপনীয় ভাবে পাচারকারী চক্রটি বিভিন্ন স্থান থেকে তক্ষকগুলো সংগ্রহ করেছিল। র‌্যাব টিম সদস্য ক্রেতা সেজে বুধবার রাতে সফল অভিযানে চালানো হয়।আনুমানিক আন্তর্জাতিক বাজার মূল্য ১ কোটি ২০ লাখ টাকা করে ৭ কোটি ২০ লাখ টাকা মূল্যের তক্ষক(টক্কর সাপ) ৬টি উদ্ধার পূর্বক জব্দ করা হয়।

[৭] এঘটনায় র‌্যাব ক্যাম্পের এসআই (সশস্ত্র)/৫৩ মো. আব্দুল কাদের আটককৃতদের বিরুদ্ধে পলাশবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের (নং-১৬,তাং -১৬/৯/২০২১) করেছেন। থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা মামলা দায়েরসহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মামলার তদন্তকারী অফিসার (আইও) থানার এসআই আব্দুর রহমান বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্তসহ পলাতকদের আটকে জোর তৎপরতা অব্যাহত রেখেছেন বলে জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত