প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বেঁচে থাকলে আগামী বছর দেশে ফিরে ঘটা করে জন্মদিন পালন করবো: বেবী নাজনীন

মনিরুল ইসলাম: [২] বিশ্বময় করোনা। করোনা পরিস্থিতিতে জন্মদিন পালন। মন সায় দেয় না। বেঁচে থাকলে আগামী বছর দেশে এসে ঘটা করে পালন করবো জন্মদিন সকলকে নিয়ে। এভাবেই বললেন বলে জানালেন তার ছোট ভাই বিনোদন সাংবাদিক এনাম সরকার।

[৩] বাংলার সঙ্গীতজগতের ‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’খ্যাত কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীনের জন্মদিন সোমবার (২৩ আগস্ট)। ১৯৬৫ সালের আজকের এই দিনে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

[৪] এই সংগীত তারকা বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন।

[৫] জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তার ভাই ও পরিবারের লোকজন। এসময় বড় বোনের সঙ্গে আলাপকালে তিনি যা বলেছেন তাই জানান এনাম সরকার।

[৬] এনাম সরকার বলেন, আপু দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। বলেছেন সবাই আমার জন্য দোয়া করেন। আল্লাহ চাইলে নিশ্চয়ই আগের পৃথিবী আমরা ফিরে পাবো। দেশে ফিরে আসবো।

[৭] বেবী নাজনীনের বাবা সংগীত ব্যক্তিত্ব মনসুর সরকারের কাছেই গানের হাতেখড়ি। আধুনিক গানের বাইরে রবীন্দ্র-নজরুল, লালন, পল্লী, ভাওয়াইয়া গানেও দখল রয়েছে তার। দীর্ঘ সংগীত ক্যারিয়ারে ৫০টি একক এবং দুই‘শোরও বেশি মিশ্র অ্যালবামে গান করেছেন এই শিল্পী। চলচ্চিত্রেও গেয়েছেন অসংখ্য গান।

[৮] বেবী নাজনীনের জনপ্রিয় গানের মধ্যে উল্লেখ যোগ্য, গানগুলো হলো, ‘কাল সারা রাত ছিল স্বপনেরও রাত’, ‘আমার ঘুম ভাঙ্গাইয়া গেলোরে মরার কোকিলে’, ‘কই গেলা নিঠুর বন্ধুরে-সারা বাংলা খুঁজি তোমারে’, ‘ওই রংধনু থেকে’, ‘পূবালী বাতাসে’, ‘দু চোখে ঘুম আসে না তোমাকে দেখার পর’, ‘এলো মেলো বাতাসে উড়িয়েছি শাড়ির আঁচলো’, ‘মানুষ নিষ্পাপ পৃথিবীতে আসে’, ‘ও বন্ধু তুমি কই কই রে..’।

[৯] গানের বাইরে সাহিত্য জগতেও পদচারণা রয়েছে বেবী নাজনীনের। তার লেখা ‘সে’, ‘ঠোঁটে ভালবাসা’ এবং ‘প্রিয়মুখ’ শিরোনামে তিনটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। সম্পাদনা: মিনহাজুল আবেদীন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত