প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বক্সার মোহহাম্মদ আলী যেনো আবারও ফিরে এসেছেন!

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] পেশাদার বক্সিংয়ে নিজের প্রথম ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পেলেন কিংবদন্তি বক্সার মোহাম্মদ আলীর নাতি নিকো আলী ওয়ালশ। প্রতিপক্ষকে মাত্র ৭০ সেকেন্ডের মাথায় নক আউট করেন তিনি। জয়ের পর প্রয়াত নানা মোহাম্মদ আলীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনও করেন।

[৩] মোহাম্মদ আলী, দ্য গ্রেটেস্ট অফ অল টাইম। কিংবদন্তী মোহাম্মদ আলী মানেই ভয়ঙ্কর গতি আর দেখার মত ফুটওয়ার্ক। ১৯৬৬ সালে এই হেভিওয়েট বক্সারের প্রমোটার হয়েছিলেন বব এরাম। আলীর ২৭টি ডুয়েলের প্রচারের দায়িত্বে ছিলেন এরাম ও তার প্রতিষ্ঠান টপ র‌্যাংক।

[৪] সর্বকালের সেরা এই অ্যাথলেটের সাথে ববের সম্পর্কটা বেশ অনেকদিনেরই। এবার মোহাম্মদ আলীর প্রোমোটারের হাত ধরেই পেশাদার বক্সিংয়ে আত্মপ্রকাশ ঘটলো ২১ বছর বয়সী নিকো আলী ওয়ালশের। সম্পর্কে মোহাম্মদ আলীর নাতি নিকো আলী ওয়ালশ।

[৫] নানার কাছ থেকে পাওয়া ষাটের দশকের শর্টস পরেই রিং এ নেমেছিলেন নিকো আলী। প্রতিপক্ষ জর্ডান উইকসকে মাত্র ৭০ সেকেন্ডেই নক আউট করেন তিনি। অভিষেকেই দুর্দান্ত জয় আলী ওয়ালশের। এ যেন নানা মোহাম্মদেরই প্রতিচ্ছবি। ছোটবেলায় আলী ওয়ালশের বক্সিংয়ে আগ্রহ না থাকলেও অবশেষে রক্তের টানে ১৪ বছর বয়সে বক্সিয়েংই ঝুঁকে পড়েন তিনি।

[৬] বাংলাদেশের সম্মানসূচক নাগরিকত্ব পাওয়া প্রয়াত মোহাম্মদ আলী মৃত্যুর আগে বক্সিং নিয়ে পরামর্শ দিতেন তার নাতিকে। এরপর থেকেই মূলত বক্সিংয়ে আগ্রহ বাড়তে থাকে নিকোর। জয়ের পর আলী ওয়ালশ জানিয়েছেন, পেশাদার বক্সিং সার্কিটে আসাটা তার জন্য সহজ ছিলো না। তবে মনযোগ এবং কঠোর পরিশ্রমেই কঠিন কাজটাকে সহজ করেছেন তিনি। – জি নিউজ/ যমুনাটিভি

সর্বাধিক পঠিত