প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কুমিল্লায় সরকারি জমি দখল করে অবৈধভাবে দোকান নির্মাণ

রুবেল মজুমদার: [২] কুমিল্লা নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশেই অবৈধভাবে সড়ক ও জনপদের জায়গায় মার্কেট নির্মাণ করা করা হয়েছে।কুমিল্লার সদর দক্ষিন উপজেলার বিজয়পুর ইউনিয়নের মহাসড়কের পাশে সরকারি জায়গা অবৈধভাবে জোরপূর্বক দখল করে ত্রিমুখী রাস্তা মাথায় দোকান নির্মাণের বিজয়পুর ইউনিয়ের ধর্মপুর গ্রামের এক ব্যক্তির। তার পাশে একই উপজেলার বিজয়পুর ইউনিয়নের  বিজয়পুর বাজারে সড়কের ১ফিট দূরত্ব রেখে নির্মাণ হয়েচ্ছে কয়েকটি মার্কেট।
[৩] এ নিয়ে স্থানীয় সড়ক ও জনপদ বিভাগে একটি অভিযোগ করেন সদর দক্ষিণ উপজেলার ধর্মপুর ও হরশপুর সড়কের পাশে বসবাস করা কয়েকজন বাসিন্দা ।ধর্মপুর এলাকার বাসিন্দা ফয়সাল মিয়া বলেন কুমিল্লা নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের সাথে যুক্ত ধর্মপুর ও হরশপুর সড়ক।সাইফুল ইসলাম ক্ষমতা ও জোরপূর্বক ভাবে ১ফিট দূরত্ব রেখে  রাস্তা উপরে সরকারি দোকান নির্মাণ করছেন।এতে এই সড়ক দিয়ে বড় ধরনের কোনো যানবাহন চলাচল করতে আমাদের ভবিষ্যৎ অসুবিধা হবে।
[৪] সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় ,সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গা দখল করে  স্থায়ীভাবে একটি মার্কেট নির্মাণ করছেন। এতে বিজয় পুর ইউনিয়নের হরশপুর ও ধর্মপুর সড়কের রাস্তা এক অংশ ব্লক হয়ে তিনি দোকান নির্মান করছেন এ সড়কের দিয়ে বড় ধরনের যানবাহন চলাচল করতে বেগ পেতে হচ্ছে ।
 [৫] এ বিষয় জানতে চাইলে  মার্কেট নির্মাণ কারী  বলেন,আমি আমার পিতৃ সম্পত্তি’র জায়গার মধ্যে দোকান তৈরী করতেছি।তবে সড়ক ও জনপদের জায়গায় আমার জায়গা থাকলে আমি প্রয়োজনে ভেঙ্গে ফেলবো।কারন আমি সাধারণ একজন মানুষ সরকারি সম্পত্তি দখল করবো এমন মানুষ আমি নই।
[৬] কুমিল্লা সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তর এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ রেজা-ই-রাব্বি বলেন,ধর্মপুর নয় যে কোন জায়গায় একজন ব্যক্তি সরকরি জায়গা দখল করছেন তার পাশের আরেকজন সরকারি জায়গা থেকে বঞ্চিত।তখন বঞ্চিত ব্যক্তি অভিযোগ করে নোটিশ পাঠায় পরবর্তীতে উচ্ছেদ হওয়ার কিছুক্ষণ পর পূর্বের ব্যক্তিগণ পূনরায় সেই জায়গা দখলে নেয়।তবে সড়ক ও জনপদ বিভাগ এমন নয়।সড়ক সম্প্রসারণ এর জন্য প্রয়োজন হলে তখন আমরা তা দখলে নিতে বাধ্য।আর ধর্মপুর এর জায়গা টি সড়ক সম্প্রসারণ এর জন্য প্রয়োজন হলে আমরা তা প্রশাসনের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

সর্বাধিক পঠিত