প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে নাসির উদ্দিনসহ গ্রেপ্তার ৫

মাসুদ আলম ও সুজন কৈরী: [২] সোমবার দুপুরে রাজধানীর উত্তরা ১ নম্বর সেক্টরের ১২ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন মাহমুদ, পরিমনির বন্ধু অমি ও  নাসিরের ৩ রক্ষিতা লিপি, সুমি ও স্নিগ্ধা। গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে বিদেশি মদ, ইয়াবা ও বিয়ার উদ্ধার করা হয়।

[৩] ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেন, এটা অমির বাসা। পরীমণির সংবাদ সম্মেলনের পর থেকে নাসির তার ৩ রক্ষিতাকে নিয়ে এ বাসায় পালিয়ে ছিলেন। এছাড়া মাদক রাখার অভিযোগে ওই ৩ নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। নাসিরের বিরুদ্ধে আগেও মাদক ও নারী নির্যাতনের মামলা হয়েছে। নানা অভিযোগে তাকে উত্তরা ক্লাব থেকে বহিষ্কার করা হয়। কেউ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে আমরা সেগুলোর তদন্ত করব।

[৪] পরীমণি ক্লাবের সদস্য না হয়ে সেখানে যাওয়ার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে যুগ্ম কমিশনার বলেন, পরীমণি স্বনামধন্য নায়িকা। বোট ক্লাব যেতেই পারেন। গেলে যে তাকে ওখানে হয়রানি করবে সেটা ঠিক না। আসলে কী ঘটেছে তা বিস্তারিত তদন্ত করে বলতে পারব।

[৫] সোমবার নায়িকা পরীমণি বাদী হয়ে সাভার থানায় মামলা ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলায় এক নম্বর আসামি করা হয় নাসির উদ্দিন মাহমুদকে। দুই নম্বর আসামি পরীমণির বন্ধু অমি। এছাড়া ৪ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। নাসির উদ্দিন ডেভেলপার ব্যবসায়ী ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য। এছাড়া তিনি ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য।

[৬] ডিএমপির গুলশান বিভাগের ডিসি সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, গত ৮ জুন বনানী থানায় গিয়েছিলেন পরীমণি। সেই রাতের সিসিটিভি ফুটেজ দেখা যায়, তার সঙ্গে আরও দুইজন ছিলেন। তিনি ঠিকভাবে দাঁড়াতে পারছিলেন না। কিছুটা অসংলগ্ন অবস্থায় তার দুই জন সঙ্গী তাকে প্রায় পাঁজাকোলা করে থানায় নিয়ে আসে। শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ ছিলেন তখন ডিউটি অফিসার তাকে দ্রুত হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন

[৭] মামলার এজাহারে পরীমণি বলেন, গত ৮ জুন রাত সাড়ে ১১টায় তার বনানীর বাসা থেকে কস্টিউম ডিজাইনার জিমি (৩০), অমি (৪০) ও বনিসহ (২০) দুটি গাড়িযোগে তারা উত্তরার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। পথে অমি বলে বেড়িবাঁধস্থ ঢাকা বোট ক্লাবে তার দুই মিনিটের কাজ আছে। অমির কথামতো তারা সবাই রাত আনুমানিক ১২টা ২০ মিনিটের ঢাকা বোট ক্লাবের সামনে গিয়ে গাড়ি দাঁড় করান।

[৮] আমার ছোটবোন বনি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বোট ক্লাবে যায়। টয়লেট হতে বের হতেই নাসির উদ্দিন মাহমুদ আমাদেরকে ডেকে বারের ভেতরে বসার অনুরোধ করেন এবং কফি খাওয়ার প্রস্তাব দেন। বিষয়টি এড়িয়ে যেতে চাইলে অমিসহ নাসির মদ্যপানের জন্য জোর করেন। আমি মদ্যপান করতে না চাইলে নাসির আমার মুখে মদের বোতল প্রবেশ করিয়ে মদ খাওয়ানোর চেষ্টা করে। এতে আমার সামনের দাঁতে ও ঠোঁটে আঘাত পাই। আসামিরা শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করে এবং জোরপূর্বক আমাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত