প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দেশে করোনা সংক্রমণের ৮০ শতাংশ ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

শিমুল মাহমুদ: [২] গত ১৬ মে আইইডিসিআর কর্র্তৃক বাংলাদেশে কোভিড-১৯ এর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট (ইন্ডিয়া ভ্যারিয়েন্ট) এর শনাক্ত সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) ও আইদেশী এ পর্যন্ত ৫০ টি নমুনার জিনোম সিকোয়েন্সিং সম্পন্ন করেছে। এ সকল নমুনার মধ্য ৪০টি ( ৮০ শতাংশ) নমুনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট, ০৮ টি (১৬ শতাংশ) নমুনার বিটা ভ্যারিয়েন্ট (সাউথ আফ্রিকা ভ্যারিয়েন্ট) শনাক্ত হয়েছে।

[৩] চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হতে সংগৃহীত ১৬ টি নমুনায়, গোপালগঞ্জ জেলা হতে সংগ্রহীত ৭ টি নমুনার সবগুলোতে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। খুলনা শহর হতে সংগ্রহীত ৩টি নমুনার সবগুলো নমুনায়, ঢাকা শহরের ৪ টি নমুনার ০২ টি নমুনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এর উপস্থিতি পাওয়া গেছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা থেকে ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলায় আগত ৭ জনের নমুনায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে। এছাড়া ভারত থেকে আগত ডেল্টা ভ্যরিয়েন্ট আক্রান্ত বিভিন্ন জেলার অপর তিন অধিবাসী চুয়াডাঙ্গা ও খুলনায় চিকিৎসাধীন আছেন।

[৪] শনাক্তকৃত ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট রোগীদের মধ্যে ৩ জনের (৭ শতাংশ) বয়স অনুর্ধ্ব ১০ বছর। ৭ জনের বয়স ১০ থেকে ২০। ১০ জনের বয়স ২১-৩০ বছর, ৮ জনের বয়স ৩১-৪০ বছর, ৮ জনের বয়স ৪১-৫০ বছর এবং ৪ জনের বয়স ৫০ বছরের উর্ধ্বে। এদের মধ্যে ২৪ জন রোগী (৬০ শতাংশ) পুরষ।

[৫] ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এ আক্রান্তদের মধ্যে ৮ জনের পাশর্^বতীদেশ ভারতে ভ্রমণের ইতিহাস আছে এবং ১৮ জনের বিদেশ থেকে আগত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার ইতিহাস আছে। অপর ১৪ জন(৩৫ রেগীর বাংলাদেশের বাইরে ভ্যমনের অথবা বিধেশ থেকে আগত ভ্যক্তির ষংস্পর্শে আসার কোনো ইতিহাস পাওয়া যায়নি। অর্র্থাৎ বাংলাদেশে কোভিড-১৯ এর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টর কমিউনিটি সংক্রমণ বিদ্যমান।

[৬] বাংলাদেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণের হার দেশের সীমান্তবর্তী এলাকাসহ অন্যান্য জেলায় বৃদ্ধি পাচ্ছে। সংক্রনের হার হ্রাস করার লক্ষ্যে এবং দেশে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টসহ কোভিড-১৯ এর অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার রোর্ধে আইইডিসিআর সকল জনসাধারণেকে সঠিকভাবে মাস্ক ব্যবহারের পাশাপাশি অন্যান্য স্বাস্থ্য বিধি( যেমন বিনা প্রয়োজনে ভ্রমণ থেকে বিরত থাকা,জনসমাগম এলাকা গুলো এড়িয়ে চলা, অন্যদের থেকে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করা ও নিয়মিত সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া) মেনে চলার জন্য অনুরোধ করছে।
রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) নিয়মিত ভিত্তিতে কোভিড-১৯ এর উচ্চ সংক্রমিত এলাকা সমূহে আক্রান্ত রোগীদের কেস ইনভেস্টিগেশন,কন্টাক্ট এবং সন্দেহ জনক রোগীদের নমুনার জিনোম সিকোয়েন্সিং করছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত