প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সাতক্ষীরার তিনটি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারত থেকে দেশে প্রবেশের সময় এক নারী মানব পাচারকারীসহ ৪ বাংলাদেশী আটক

আসাদুজ্জামান:[২] সাতক্ষীরার তিনটি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারত থেকে দেশে প্রবেশের সময় এক মানব পাচাকারীসহ ৪ বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ভোমরা এবং কলারোয়া উপজেলার কাকডাংগা ও মাদরা সীমান্ত থেকে তাদের আটক করা হয়।

[৩] এদিকে,ভারতে করোনার ভেরিয়েন্ট সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় সে দেশ থেকে প্রতিদিন অবৈধ পথে লোকজন বাংলাদেশে প্রবেশ করায় আতংকে জেলা বাসী।আটককৃতরা হলেন, সদর উপজেলার ভোমরা ইউনিয়নের লক্ষিদাড়ি গ্রামের তারক মন্ডলের স্ত্রী মানব পাচারকারী  আঙ্গুর বালা, কলারোয়া উপজেলার বাবনখালী গ্রামের রকিবুল গাজীর স্ত্রী লতা বিবি (৫৫), একই উপজেলার সোনাবাড়িয়া গ্রামের লালজি শর্মার স্ত্রী হালিমা বেগম(২৬) ও একই গ্রামের ইয়াছিন আলীর স্ত্রী নাছিমা খাতুন (২৪)।

[৪] সাতক্ষীরা বিজিবি’র ৩৩ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ আল মাহমুদ জানান, করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট প্রতিরোধে সীমান্তে বিজিবির পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারী শুরু করা হয়েছে। এই নজরদারী করার সময় বিজিবির বিশেষ টহল বাহিনীর সদস্যরা রাতে ভারত থেকে অবৈপথে দেশে আসার সময় সদর উপজেলার ভোমরা সীমান্ত থেকে শ্রী আঙ্গুর বালা নামের উক্ত নারী মানবপাচারকারী ও কলারোয়া উপজেলার কাকডাংগা ও মাদরা সীমান্ত থেকে লতাবিবি, হালিমা ও নাছিমা নামের উক্ত তিন নারীকে আটক করে।

[৫] আটককৃতরা সবাই বাংলাদেশী নাগরিক। আটককৃতদের জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে কলারোয়া উপজেলার সোনাবাড়ীয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে প্রেরণ করা হয়েছে।

[৬] ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন শেষে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গস্খহণ করে সংশ্লিষ্ট থানায় সোপর্দ করা হবে।এদিকে, সাতক্ষীরার প্রতিটি সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিনই ভারত থেকে অবৈধ পথে লোকজন দেশে প্রবেশ করছে। এতে ভারতীয় ভেরিয়েন্ট সংক্রমনের আশংকায় সাধারন মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। ইতিমধ্যে সাতক্ষীরায় উদ্বেকজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে করোনা।সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত