প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] নাফনদীর সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশকালে ৭ রোহিঙ্গা আটক

ফরহাদ আমিন: [২] কক্সবাজারের টেকনাফের জাদিমুড়া নয়াপাড়া এলাকার রোহিঙ্গা পারাপারের ঘাট দিয়ে অনুপ্রবেশকালে ৭জন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করেছে এপিবিএন পুলিশ সদস্যরা।

[৩] এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসপি মোঃ তারিকুল ইসলাম তারিক।তিনি জানান,রোববার(২৩মে) রাত সাড়ে১১টায় উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শিবির সংলগ্ন টিডিএস হাসপাতালের পাশ দিয়ে মিয়ানমার হতে দালালদের মাধ্যমে নাফনদী সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশকালে নয়াপাড়া ক্যাম্পে দায়িত্বরত এপিবিএন পুলিশ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে কুতপালং ক্যাম্পে আশ্রয় নিতে আসা ফজল করিমের ছেলে আজিজুল হক (৪৪), শালবাগান ক্যাম্পে আশ্রয় নিতে আসা হাবিবের ছেলে শাহ আলম (৫৫), মুসা আলীর ছেলে হোসেন আহমেদ (৬০), লোকমান হাকিমের ছেলে নুর সালাম (৪৭), জাদিমুড়া ক্যাম্পে যেতে আসা ফয়েজ আহমদের ছেলে আবুল হোসেন (৫০), বশির আহমদের ছেলে মুদ্দাছার (২১) এবং লেদা ক্যাম্পে আশ্রয় নিতে আসা রশিদ আহমদের ছেলে সালমান (২১) কে আটক করতে সক্ষম হয়।

[৪] তিনি আরো জানান, অনুপ্রবেশকালে ৭জন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করা হয়।আরআরআরসির সিদ্ধান্তমতে আটককৃতদের বিরুদ্ধে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

[৫] এদিকে স্থানীয়রা জানান,নয়াপাড়ার মিজান, ইমজাদ, নুরু, শাহ আলমের নেতৃত্বে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট এই রোহিঙ্গা পারাপারের ঘাটে জড়িত রয়েছে।স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা এবং প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ার কারণে তারা দিনের পর দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

[৬] এ বিষয়ে হ্নীলা ক্ষুদ্র মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ শফি বলেন,নাফনদী দিয়ে মাদকের চালান খালাস ও মানব পাচারের কারণে দীর্ঘ ৩-৪ বছর ধরে মাছ শিকার বন্ধ রয়েছে। কিন্তু আমরা নাফনদী নির্ভর জেলেরা মানবেতর দিনযাপন করে আসলেও কারো মাথাব্যথা হচ্ছেনা। এখনো বিভিন্ন সীমান্তে যারা মাদক ও মানব পাচারে জড়িত, তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি দাবী করেছেন সচেতন মহল।সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত