প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ৩ বার কলকাতা জয়ের পর, লক্ষ্য এবার দিল্লি, বলছেন মমতা

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] অন্য রাজের বিরোধী নেতারা বলছেন, তারা বাঙালি নেতৃর উপরেই ভরসা রাখতে আগ্রহী।
[৩] পশ্চিমবঙ্গে কাজ করলো না গুজরাটি জুটির জাদু। সারা ভারতে সফলতার পর পশ্চিমবঙ্গে আবারও ব্যর্থ মোদি-অমিত শাহ। ভারতের অন্য রাজ্যের নেতারাও বলছেন, গেরুয়া ঢেউ মোকাবেলায় মমতার নেতৃত্বেই তাদের আস্থা রাখতে হবে। এর কোনও বিকল্প নেই। আনন্দবাজার

[৪] মমতার এই জয়ে মোদি-শাহের বিচলিত হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। তাদের মতে, বিভিন্ন সভায় মমতাকে যে ভাবে ‘দিদি-ও-দিদি-ই’ বলে সম্মোধন করেছেন মোদি, তাতে নারীদের একটা বড় অংশ তার প্রতি অসন্তুষ্ট। ভোটের ফল বের হওয়ার পর সমাজবাদী পার্টির সভাপতি অখিলেশ যাদবের মুখেও সেই প্রসঙ্গ উঠে এসেছে।

[৫] বিজেপি-কে হারানো মমতাকে ‘দিদি-জিয়ো-দিদি’ বলে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন তিনি। শরদ পওয়ার, শশী থারুরের মতো বিজেপি-বিরোধী জাতীয় নেতারাও মমতাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এতে জাতীয় রাজনীতিতে বিজেপি বিরোধী জোটের মুখ হিসেবে মমতা উঠে এসেছেন, যা ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে মোদী-শাহকে ভোগাতে পারে।

[৬] নির্বাচনী প্রচারে ইতোমধ্যেই ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনের কথা উঠে এসেছে মমতার মুখেও। তৃতীয় বারের জন্য রাজ্যের শাসনভার হাতে পাওয়ার পর দিল্লিতে মনোনিবেশ করবেন বলে জানিয়েছেন।

[৭] বিরোধী শিবিরের অধিকাংশ নেতার মতে, পশ্চিমবঙ্গের এই রায় বিজেপির ‘এক রাষ্ট্র এক দল’ অথবা হিন্দুরাষ্ট্র গঠন সংক্রান্ত প্রচারের বিরুদ্ধে একটি জিহাদ। তৃণমূল নেতা সুখেন্দুশেখর রায় বলেন, ‘এ দিনের এই ফলাফল আঞ্চলিক আশার জয়। বিজেপির দিল্লি-কেন্দ্রিকতা এবং গোটা দেশকে দিল্লির বশংবদ করে তোলার বিরুদ্ধে বাংলার মানুষ ভোট দিয়েছেন। গোটা দেশের ক্ষমতাকে দিল্লির করিডরে কুক্ষিগত করার প্রয়াসের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছেন।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত