প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আনিস আলমগীর: বাবুনগরীর পিছু হটা- দুটিকেই আমি অভিনন্দন!

আনিস আলমগীর: হেফাজতের বিরুদ্ধে সরকারের চলমান কর্মসূচি অব্যাহত রাখা এবং বাবুনগরীর পিছু হটা- দুটিকেই আমি অভিনন্দন জানাই। বাবুনগরী নিশ্চয়ই খবর রাখেন যে তারা যখন বাংলাদেশে জ্বালাও-পোড়াও আন্দোলন করছেন তখন পাকিস্তানি তালেবান গোষ্ঠী ফ্রান্সের কার্টুন ইস্যুতে ফ্রান্স রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহারের দাবিতে সরকারের বিরুদ্ধে জঙ্গি শক্তি নিয়ে আন্দোলনে নেমেছে।

ইমরান খান সরকার মোল্লা গোষ্ঠীকে ছাড় দেয়নি, ‘ডাণ্ডা মেরে ঠান্ডা’ করে দিয়েছে। মোল্লাদের তেহরিক-ই-লাবিয়াক পাকিস্তান (টিএলপি) পার্টিকে নিষিদ্ধ করেছে। বাংলাদেশেও সরকার যদি হেফাজতকে বরাবরের মতো ছাড় দেওয়া, তাদের সঙ্গে সমঝোতা করার নীতি বজায় রাখে, তাহলে এই মোল্লারাও বাংলাদেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তান বানানোর স্বপ্ন থেকে পিছু হটবে না।
গত কয়েক মাস সমর্থকদের সরকারের বিরুদ্ধে খেপিয়ে, রাষ্ট্রের আইন-কানুনের বিরুদ্ধে উসকানি দিয়ে- এখন ‘কাউকে ক্ষমতায় বসানো-নামানো হেফাজতের কাজ নয়’ বলে পার পাওয়া উচিত হবে না। বাবুনগরীর গোপন তৎপরতা সরকারের কাছে নিশ্চয়ই অজানা নয়। কমিটি বিলোপ, রাজনীতি না করার কথা বলা হেফাজতের একটা চালাকির অংশ। এটা আত্মশুদ্ধির জন্য নাকি আত্মরক্ষার জন্য সরকারের দীর্ঘমেয়াদি নজরদারির দরকার আছে। সেই সঙ্গে সরকারকে অনুরোধ করবো, ঢালাওভাবে সবাইকে গ্রেফতার না করে প্রকৃত উসকানিদাতাদের বের করে দৃষ্টান্তমূলক সাজা দেওয়ার জন্য। ফালতু মামলা দিয়ে সংখ্যা না বাড়িয়ে আসল মামলা দিতে হবে। যারা হেফাজতের বিরোধিতাকে ইসলামের বিরোধিতা বলে ওয়াজে, জুমার খুতবায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিষবাষ্প ছড়াচ্ছে, তাদেরও আইনের আওতায় আনতে হবে।

আজকে ইসলামের বিপদ আসছে ভিন্ন ধর্মানুসারীদের কাছ থেকে নয়, বিপদ আসছে আলেম নামধারী ভণ্ড ধর্ম ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে। আল্লামা ইকবাল এজন্যই ভারাক্রান্ত হৃদয়ে একটি কবিতা লিখেছিলেন, যার বাংলা তরজমা করলে হয়- ‘আমার ঘরে আগুন লেগেছে আমার প্রদীপ থেকে’। হেফাজতিদের আত্মশুদ্ধির জন্য সকাল-বিকাল এই কবিতা পাঠ করা উচিত। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত