প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খান আসাদ: শারীরিক দূরত্ব, সামাজিক সহযোগিতা ও নৈকট্য বাড়ান

খান আসাদ: মাস্ক পরা, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, নিজের ইমিউনিটি রক্ষার চেষ্টা ও মানসিক স্বাস্থ্যের দিকে নজর দেওয়া, ব্যক্তির ভেতর থেকে আসতে হবে। মানুষ যদি বিজ্ঞানমনস্ক হয়, মানুষ যদি অপরের প্রতি সংবেদনশীল হয়, মানুষ যদি সাংস্কৃতিকভাবে সভ্য ও বিকশিত হয়, তাহলে সে তাঁর নিজের জীবন ও সমাজের অন্যদের জীবনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারে।

একইসঙ্গে সমাজে ও রাষ্ট্রে এমন নেতৃত্ব দরকার, যারা বিজ্ঞানমনস্ক, যারা মানুষের প্রতি সংবেদনশীল, যারা সহযোগিতা, সাম্য ও শান্তিতে বিশ্বাসী। নেতৃত্বের বিজ্ঞানচেতনা ও সাম্যের মূল্যবোধ থাকলে, বিজ্ঞান শিক্ষার প্রতিষ্ঠান হতো, অনেক দক্ষ প্রযুক্তিবিদ তৈরি হতো ও লাগসই প্রযুক্তি ব্যবহার করে, করোনার মত সংকট মোকাবেলা সহজ হতো।

আমাদের বিজ্ঞানচেতনা ও দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার একটি শিক্ষাব্যবস্থা দরকার। আমাদের বিজ্ঞানচেতনা বিকাশের, সহযোগিতা সহভাগিতা ও সাম্যের মূল্যবোধ প্রসারের একটি সাংস্কৃতিক চর্চা ও পরিবেশ দরকার। নিজের সন্তানদের অন্ধবিশ্বাসের অন্ধকার থেকে বিজ্ঞানচেতনার আলোয় নিয়ে আসা কিন্তু প্রত্যেক বাবা মায়ের দায়িত্ব। এই শিক্ষা পরিবারেও দেওয়া যায়। একই সাথে আপনার সন্তান বিজ্ঞানচেতনায় আলোকিত ও দক্ষ মানুষ হবে, সেই শিক্ষাব্যবস্থার দাবী তোলাও আপনার কাজ। শারীরিক দূরত্ব এবং সামাজিক সহযোগিতা ও নৈকট্য বাড়ান। সামাজিক মাধ্যমে সক্রিয় থাকুন। সুস্থ থাকুন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত