প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লেনিনের জানা অজানা ৬টি বিষয়

দেবদুলাল মুন্না, ফেসবুক থেকে,

১, তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল রুশ সাহিত্যিকদের মধ্যে কে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ? অনেকে ভেবেছিলেন ম্যাক্সিম গোর্কির নাম বলবেন। কিন্তু লেনিন বলেছিলেন,লেভ তলস্তয় ।কারণ? লেনিন বলেছিলেন , তার লেখা থেকে আমি রাশিয়ার নৃতাত্ত্বিক ভাষ্যটা পাই এবং সেটা আমার আগের যুগের । ফলে আমার আগের সমাজের সংস্কৃতি বোঝতে সুবিধা হয়েছিল।

২, লেনিনের ভাই আলেকজান্ডারকে জার শাসকরা মেরে ফেলার পর তিনি প্রতিশোধের নেশায় মত্ত হয়ে মার্কসবাদ আত্মস্থ করেন এবং বলশেভিক বিপ্লব করে জারদের উৎখাত করেন। মানে খুনের বদলে খুন নয়, পুরা সিস্টেমই পাল্টে দিলেন।

৩,লেনিন এপ্রিল মাসে রুশ সোশ্যাল-ডেমোক্রেটিক অর্থোডক্সির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। কারণ তারা শুধু তত্ত্ব নিয়ে থাকতেন।লেনিন গ্যেটের শ্রেষ্ঠ কাজ মিফিস্টোফিলিস থেকে উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, ‘হে বন্ধু, তত্ত্ব হলো ধূসর, কিন্তু সবুজ হলো জীবনের শাশ্বত বৃক্ষ।’তিনি সেসব বুদ্ধিজীবিদের ত্যাগ করেন।

৪, লেনিন মদ্যপায়ী ছিলেন না। তবে মাঝে মাঝে মিদ খেলে বেশি খেতেন। কারণ, তিনি বলতেন, মদ তো পানই করা হয় ঘোরগ্রস্ত হওয়ার জন্য।পুষ্টিহীনতার ঘোর থেকে মুক্তি পেতে হলে দুধ উত্তম।

৫]লেনিনের একবার বৃটেন দেখার ইচ্ছা হলো। তিনি সেখানে গিয়ে একরাত হোটেলে ঘুমিয়ে পরদিন রাস্তাঘাট দেখে ওইদিনই রাশিয়া চলে এলেন।পরে তার কাছে মায়াকোভস্কি যখন জানতে চান, আপনি তো সপ্তাহখানেক থাকবেন বলে গিয়েছিলেন। ফিরে এলেন দ্রুত?

তখন লেনিনের জবাব ছিল,‘ওদের দেখলে আমার ফাকিং করতে ইচ্ছা করে। গুলি করতে ইচ্ছা করে।

৬, লেনিন তার ছদ্মনাম। কিন্তু এ নামেই তিনি বিখ্যাত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত