প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে গৃহবধূকে হত্যা

আল-হেলাল: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় দুই সন্তানের জননীকে হত্যা করে ঘরের বাইরে ফেলে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত গৃহবধু আজমিনা বেগম (২৮) উপজেলার ৫নং বাদাঘাট উত্তর ইউনিয়নের জৈতাপুর গ্রামের শাহনুর মিয়ার স্ত্রী। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) রাত আনুমানিক ২ টায় ঐ হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটেতে পারে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারের সূত্রে জানা যায়, আজমিনার স্বামী শাহনুর মিয়া গত এক সপ্তাহ যাবৎ ধরে জামালগঞ্জ উপজেলার একটি হাওরে ধান কাটার কাজে গিয়েছেন। সেজন্য গৃহবধূ তার ৫ বছরের ১ ছেলে ও ২ বছরের ১ মেয়েকে সাথে নিয়ে তার বসত ঘরে একাই থাকতেন। কিন্তু মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ২টার দিকে আজমিনার ছেলে-মেয়ের কান্নাকাটি শুনে পাশের ঘরে প্রতিবেশীরা দৌড়ে ছুটে এসে দেখতে পায় আজমিনা ঘরে নেই। পরে শুশুর বাড়ির লোকজন রাতে গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করে আজমিনার সন্ধান না পেয়ে ঘরে ফিরে আসে।

ভোরে আবারো তার খুঁজে বের হলে বাড়ির পাশে রান্নাঘরের লাকড়ি রাখার মাচার নিচে গৃহবধূর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখতে পেয়ে পরিবারের লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেন। পরে বৃধবার সকাল সাড়ে সাতটায় খবর পেয়ে তাহিরপুর থানার বাদাঘাট পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই মো. রাজিবুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। আজমিনার স্বামী শাহনুর মিয়া বলেন, আমি গত ৭-৮ দিন ধরে ধান কাটার কাজে জামালগঞ্জের হাওরে ছিলাম। কে বা কারা এবং কেন আমার স্ত্রীকে এমন করে হত্যা করে লাশ বাইরে ফেলে রাখলো, কিছুই বুঝতে পারছিনা।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি একটি হত্যাকান্ড। নিহতের মাথায়,গালে ও গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানা যাবে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত