প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মোহাম্মদ এ আরাফাত: উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর কর্মীরা এখন চ্যালেঞ্জ দিয়ে বেড়াচ্ছে, নির্লজ্জতার কোনো সীমা নেই এদের

মোহাম্মদ আরাফাত: উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর কর্মীরা এখন চ্যালেঞ্জ দিয়ে বেড়াচ্ছে, নির্লজ্জতার কোনো সীমা নেই এদের! অথচ [১] ‘ওই লোকের’ স্বকণ্ঠে ফোনালাপ পাওয়া গেছে তার আসল স্ত্রীর সাথে, যেখানে সে পরিষ্কার স্বীকার করেছে যে, যে মেয়েটির সাথে সে সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টে আটক হয়েছিল সে জাফর শহীদুলের বউ, তার বউ না। পরিস্থিতির চাপে সে মিথ্যা বলতে বাধ্য হয়েছে। এই ফোনালাপে পরিস্কার বোঝা যাচ্ছে ‘ওই লোক’ একজন মিথ্যাবদী।

[২] আরেকটি ফোনালাপে সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টে জাফর শহীদুলের স্ত্রীর সাথে হাতেনাতে ধরা খাওয়ার পর বেরিয়ে এসে সেই মহিলার সাথে ‘ওই লোকের’ কথপোকথনেও পরিষ্কার বোঝা যায় যে ‘ওই মহিলা’ তার স্ত্রী ছিল না। [৩] ‘ওই লোকের’ বোনের সাথে তার আসল স্ত্রীর আরেকটি ফোনালাপে শোনা যায় ‘ওই লোকের’ বোন তার আসল স্ত্রীকে বোঝানোর চেষ্টা করছে যে সে যেন ‘ওই লোক’ সবার সামনে যে মিথ্যা কথা বলছে তাই সত্য বলে ধরে নেয় এবং অন্য কিছু না বলে।

এখন ‘ওই লোকের’ অন্ধ অনুসারীরা আপনারা যদি দাবি করেন এই কণ্ঠ ‘ওই লোকের’ না, বা এই কণ্ঠ ‘ওই লোকের’ আসল বউয়ের না বা এই কণ্ঠ ‘ওই লোকের’ বোনের না, বা এই কণ্ঠ ‘ওই মহিলার’ না, তাহলে টেকনলজি দিয়ে প্রমাণ করে দিন সেই ফোনালাপের কণ্ঠ ‘ওই লোকের’ না। এই  টেকনলজি বাজারেই পাওয়া যায়। আমিই আপনাকে চ্যালেঞ্জ করলাম, প্রমাণ করুন। আপনি প্রমাণ করতে পারলে আমি মেনে নেবো। প্রমাণ করতে না পারলে চুপ থাকুন, অন্ধের মতো একটি অন্যায়কে নির্লজ্জের মতো সমর্থন দেওয়া বন্ধ করুন।

একটা বিষয় পরিষ্কার করি, রিসোর্টে ‘ওই লোক’ কার বউয়ের সাথে ধরা পড়েছে তার থেকে বড় কথা হলো সে জঘন্য মিথ্যাচার করেছে। জাতিকে ইসলামের নসিহত করে তারা আর অপকর্মের পর ডাহা মিথ্যাচার করে, এই দ্বিচারিতাই বলে দেয় তাদের চরিত্র কেমন। ‘ওই লোক’ ঘটনার পর প্রায় তিনবার ফেসবুক লাইভে এসে উক্ত ঘটনার বিভিন্ন ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তার দাবিকৃত দ্বিতীয় স্ত্রীর কাবিননামাটি একবারও দেখাতে পারেনি। যদিও আমি তার দাবিকৃত দ্বিতীয় স্ত্রীর কাবিননামা নিয়ে মোটেও আগ্রহী নই। আমার প্রশ্ন এদের ন্যূনতম নীতি-নৈতিকতা ও সততা নিয়ে। লেখক : চেয়ারম্যান, সুচিন্তা ফাউন্ডেশন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত