প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]গ্লোবাল ফ্রিডম হাউজের প্রতিবেদন: দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশেই রাজনৈতিক অধিকার পুরোপুরি মুক্ত নয়

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২]মোদি জামানায় অবনমন হয়েছে ভারতের।

[৩] ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালে বাংলাদেশের স্কোর কমেছে ৩ পয়েন্ট। ২০২০ সালের প্রতিবেদনে স্কোর ছিলো ৪১। এ বছর সারা বিশ্বে গণতন্ত্রের অবনমন হয়েছে। ভারতের স্কোর ছিলো ৭৫। এবছর তা ৬৭তে নেমে আসে। সব মিলিয়ে এ বছর ২৮টি দেশে গণতন্ত্রের উন্নতি হয়েছে। আর অবনমন হয়েছে ৭৩ দেশের।

[৪] বড় গণতন্ত্রগুলোতে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ঝাপসা হয়ে আসছে বলে মন্তব্য করেছে ফ্রিডম হাউস। এছাড়া, ক্রমেই সংঘাতপূর্ণ হয়ে উঠছে বিশ্ব। আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার যুদ্ধ থামলেও যে কোনো সময় যুদ্ধ বেধে যেতে পারে ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ার মাঝে। মিয়ানমারের পরিস্থিতি প্রচণ্ড ঘোলাটে। লিবিয়া আর ইয়ামেনে যুদ্ধ থামছেই না।

[৫] বিশ্বের সবচেয়ে জনাকীর্ণ গণতন্ত্র ভারতের পতন হয়েছে। গতবছর পর্যন্ত তাদের রাজনীতি ও গণতন্ত্র ছিলো মুক্ত। এ বছর আংশিক মুক্ত। ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের রাজনীতি মুক্ত নয়। সেক্ষেত্রে স্কোর ২৯। দক্ষিণ এশিয়ার সবগুলো দেশের গণতন্ত্রই আংশিক মুক্ত। ভুটান (৬১),মালদ্বীপ(৪০), মিয়ানমার (২৮), নেপাল (৫৬), পাকিস্তান(৩৭), পাকিস্তানি কাশ্মীর (২৮), শ্রীলঙ্কা(৫৬), আফগানিস্তান(২৭)। [৬] রাজনৈতিক অধিকারের জন্য ৪০ পয়েন্ট বরাদ্দ রেখেছিলো ফ্রিডম হাউজ। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের স্কোর ১৫। আর সামাজিক স্বাধীনতায় ৬০ এর মধ্যে ৩৯ পেয়েছে দেশটি। সম্পাদনা : মোহাম্মদ রকিব

সর্বাধিক পঠিত