প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গাজীপুরে যৌতুক না পেয়ে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

গাজীপুর প্রতিনিধি: [২] বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর রওশন সড়ক এলাকার পশ্চিম চান্দনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। শুক্রবার লাশের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়।

[৩] নিহত গৃহবধুর জান্নাতুল (২৩) সিরাজগঞ্জ সদরের শাহেদ নগর এলাকার উজ্জল বেপারীর মেয়ে। সে স্বামী রাজিব আহমেদের সাথে পশ্চিম চান্দনা এলাকায় ভাড়া থেকে দু’জনেই স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকুরি করতেন।

[৪] নিহত গৃহবধুর চাচা তোফাজ্জল হোসেন মিলন জানান, আড়াই বছর আগে ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর এলাকার রহমত আলীর ছেলে রাজিব আহমেদের সঙ্গে জান্নাতুলের বিয়ে হয়। বর্তমানে জান্নাতুল দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলো। বিয়ের পর থেকে স্বামী রাজিব এবং শ^শুর-শাশুড়ি মিলে যৌতুকের জন্য নানাভাবে নির্যাতন করতো। তাদের চাহিদা মতো একবার ৩০ হাজার পরের বার ৫০ হাজার টাকা দেয়া হয়। সম্প্রতি তারা আরো এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। টাকা না দিতে পারায় জান্নাতুলের উপর চালানো হতো নির্যাতন।

[৫] তিনি আরো বলেন, ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার দুপুরে যৌতুকের টাকার জন্য জান্নাতুলকে মারধর করা হয়। এক পর্যায়ে তার পেটে লাথি দিলে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে জান্নাতুলকে রশি দিয়ে গলায় বেধে ঘরের ধরনার সঙ্গে ঝুঁলিয়ে রাখা হয়। প্রতিবেশীরা টের পেয়ে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ জান্নাতুলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

[৬] এ ব্যাপারে জান্নাতুলের স্বামী রাজিব আহমেদ জানান, সাংসারিক বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হলে সে গলায় ফাঁসি নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। যৌতুকের জন্য কোন সময় তাকে নির্যাতন করা হতো না।

[৭] এ ব্যাপারে গাজীপুর মেট্রোপলিটন বাসন থানার এসআই ইব্রাহিম খলিল জানান, ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত