প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পাচার ও যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রমাণের পর মার্কিন অলিম্পিক কোচ গেডার্ডের আত্মহত্যা

রাশিদুল ইসলাম : [২] ৬৩ বছরের এই মার্কিন জিমন্যাস্ট কোচের বিরুদ্ধে নারী পাচার ও যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আনার পর তিনি নিজেই বন্দুকের গুলিতে আত্মহত্যা করেন। তার সঙ্গে মার্কিন অলিম্পিক জিমন্যাস্ট দলের চিকিৎসক ল্যারি নাসারের সাথে সম্পর্ক ছিল যিনি এখন জেল খাটছেন। দি সান

[৩] ইটোন কাউন্টিতে দায়ের করা আদালতের নথি অনুসারে, গেডার্টের বিরুদ্ধে মানব পাচারের ২০টি গণনা, প্রথম-স্তরের যৌন নির্যাতনের একটি গণনা, দ্বিতীয় স্তরের যৌন নিপীড়নের একটি গণনা, ফৌজদারী উদ্যোগ এবং একজন পুলিশ অফিসারের কাছে মিথ্যাচারের অভিযোগ আনা হয়।

[৪] মিশিগানের অ্যাটর্নি জেনারেল ডানা নেসেল এক বিবৃতিতে বলেছেন, নারী পাচার ও যৌন নির্যাতনে জড়িত প্রত্যেকের জন্য এটি একটি মর্মান্তিক গল্পের করুণ পরিণতি।

[৫] গেডার্ডের অ্যাটর্নি অফিস তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করলেও পরিস্থিতি সম্পর্কে কোনো তথ্য অবহিত করেনি।

[৬] ২০১২ সালে দুটি যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠে গেডার্ডের বিরুদ্ধে। যা ছিল একাধিক তরুণীর মৌখিক, শারীরিক ও যৌন নির্যাতনের অভিযোগ।

[৭] অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস বলছে গেডার্ড অলিম্পিক কোচ হিসাবে ২০ বছরের পেশাগত জীবনে তার খ্যাতি ব্যবহার করেছিলেন এবং বাবা-মাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে তিনি তার ছাত্রদের বিশ্বমানের ক্রীড়াবিদ হিসাবে পরিণত করতে পারবেন।

[৮] যেসব নারী এধরনের যৌন নির্যাতনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন তাদের মার্কিন অলিম্পিক ও প্যারালিম্পিক কমিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সারা হিরশল্যান্ড এই মুহূর্তে বেঁচে থাকাদের কণ্ঠস্বর হিসেবে অভিহিত করে বলেন আজকের ঘটনাবলী সহ সবচেয়ে কঠিন পরিস্থিতিতে সাহসী এবং শক্তি প্রদর্শন করে তারা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত