প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ইরানের সঙ্গে উত্তেজনা বৃদ্ধিতে সৌদি আরবে সেনা বাড়াচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

রাশিদুল ইসলাম : [২] মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল আরবান বলেছেন লোহিত সাগরে সৌদি বন্দর ও দেশটির সর্ববৃহৎ তেল কোম্পানি আরামকো’র তেল ক্ষেত্রে হামলার প্রেক্ষিতে সেনা সংখ্যা বৃদ্ধি করা হচ্ছে। সৌদি আরবে মার্কিন ঘাঁটিতে সেনা ছাড়াও অস্ত্র-সরঞ্জাম সরবরাহ বাড়বে। প্রেসটিভি

[৩] ইয়েমেনে সৌদি সমর্থিত জোটের যুদ্ধের কারণে হুথি যোদ্ধাদের আক্রমণ রিয়াদে বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত কয়েকদিনে বেশ কয়েকটি হামলা করেছে হুথিরা। আরামকো দিনে সৌদি আরবের অর্ধেক ও বিশ্ব চাহিদার ৫ শতাংশ তেল উৎপাদন করে।

[৪] তবে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরব এধরনের হামলার জন্যে ইরানকে দায়ী করলেও ইয়েমেনের হুথিরা স্বীকার করছে তারা রিয়াদে হামলা চালাচ্ছে। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেস বলেছেন তদন্তে সৌদি আরবে হামলার ক্ষেত্রে ইরানকে দায়ী করার অভিযোগ প্রমাণ হয়নি।

[৫] ক্যাপ্টেন বিল আরবান বলছেন সৌদিতে মার্কিন সেনা বৃদ্ধি বিচক্ষণ সামরিক পরিকল্পনার অংশ যা কোনো ধরনের অস্থিরতার ক্ষেত্রে সাময়িক বা দেশটির সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার বিষয়। যা কোনোভাবেই উস্কানিমূলক নয়।

[৬] সৌদি আরবে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা মোতায়েন বাবদ রিয়াদকে ৫শ মিলিয়ন ডলার খরচ করতে হচ্ছে।

[৭] একই সঙ্গে সৌদি চাপে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের শাসনামলে ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের অংশ হিসেবে ১৫ হাজার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। একই সঙ্গে ইরানের ওপর সামরিক উস্কানি অব্যাহত ছিল।

[৮] বর্তমানে সৌদি আরবে আড়াই হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে। রিয়াদের দক্ষিণপূর্বে মার্কিন ঘাঁটিতে রয়েছে জঙ্গি বিমান ও প্যাট্রিয়ট মিসাইল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত