প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ৯৯৯ এ ফোন: চলন্ত ট্রেন থেকে গুরুতর অসুস্থ নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি

সুজন কৈরী : [২] পুলিশ পরিচালিত ‘জাতীয় জরুরি সেবা’ নম্বর ৯৯৯ এ চলন্ত একটি ট্রেনের পরিচালকের ফোন কলে গুরুতর অসুস্থ নারীকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

[৩] ৯৯৯ এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বলেন, রোববার সন্ধ্যায় ঢাকার কমলাপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনের পরিচালক আক্তারুল ইসলাম ফোন করেন। উদ্বিগ্ন কন্ঠে তিনি জানান তার ট্রেনে একজন অসুস্থ মহিলা যাত্রী বেদনায় কাতরাচ্ছেন এবং তার রক্তপাত হচ্ছে। তিনি ইতোমধ্যে ট্রেনে ডাক্তার যাত্রী আছে কিনা খোঁজ নিয়েছেন। কিন্তু কোনো ডাক্তার যাত্রী ছিলেন না।

[৪] আক্তারুল ইসলাম আরো জানান, ট্রেনটি ঈশ্বরদীর মুলাডুলি অতিক্রম করছে, পরবর্তী স্টপেজ সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া পৌঁছাতে আরও প্রায় পঞ্চাশ মিনিট লাগবে। ৯৯৯ এম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা করতে পারলে তিনি অসুস্থ যাত্রীকে উল্লাপাড়া স্টেশনে নামিয়ে দেবেন।

[৫] ৯৯৯ তাৎক্ষণিক সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগাযোগ করে রেল স্টেশনে এম্বুল্যান্স পাঠানোর ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানায় এবং সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এম্বুল্যান্সের চালকের সাথে ট্রেন পরিচালককে কথা বলিয়ে দেয়।

[৬] রাত পৌণে আটটায় ট্রেনটি সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় থামে এবং রোগীকে দ্রুত সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে ৯৯৯ কে জানিয়েছেন এম্বুল্যান্স চালক।

[৭] পরে অসুস্থ নারীর ভাইয়ের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে ৯৯৯ থেকে ফোনে যোগাযোগ করা হয়। অসুস্থ নারীর ভাই দোলা মিয়া ৯৯৯ কে জানান, বোন এবং ভগ্নিপতিকে নিয়ে দুপুর একটায় গাইবান্ধার বামনডাঙ্গা থেকে লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনে ওঠেন ঢাকার কমলাপুরের উদ্দেশ্যে। মাস খানেক আগে গর্ভপাত হয়ে তার বোনের সন্তান নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু বোন পুরোপুরি সুস্থ হয়নি। পথে তার বোনের বেদনা এবং রক্তপাত শুরু হয়।

[৮] আনোয়ার সাত্তার আরও বলেন, ৯৯৯ থেকে সোমবার সকালে দোলা মিয়াকে ফোন করা হলে তিনি জানান, তার বোনের বর্তমান অবস্থা ভালো এবং স্থিতিশীল। এখনো তারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আছেন এবং ডাক্তারের পরামর্শে আল্ট্রাসনোগ্রাফী করিয়েছেন। তিনি বোনের সংকট মুহূর্তে সহায়তা করার জন্য ৯৯৯ এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত