প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বীরাঙ্গনা স্ত্রীর চিকিৎসা নিয়ে বিপাকে মুক্তিযোদ্ধা স্বামী

ডেস্ক রিপোর্ট: একজন রণাঙ্গনের যোদ্ধা, সহধর্মিণী বীরাঙ্গনা। বলছি, এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কথা। স্বাধীনতার এতো বছর পর স্বীকৃতি ছাড়া মেলেনি আর কোন কিছুই। আজ জীবন সায়াহ্নে এসে, টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে না পেরে, মৃত্যুর সাথে লড়াই করছেন নাজমা বেগম। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন এই বীরাঙ্গনার হাসপাতাল বিল পরিশোধ করতে না পেরে বিপাকে মুক্তিযোদ্ধা স্বামী। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, নাজমা বেগমের অবস্থা সংকটাপন্ন। এই মুহূর্তে তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। সময় টিভি

হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে যখন লড়াই করছেন বীরাঙ্গনা নাজমা বেগম, তখন উদ্বিগ্ন মুখে বােইরে অপেক্ষায় বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বামী মোশারফ হোসেন শেখ। মুক্তিযুদ্ধের অবদান হিসেবে পেয়েছেন স্বীকৃতি আর বড় বড় করে পত্রিকার পাতায় ছাপা হয়েছে ছবি- এইটুকু ছাড়া আর কিছুই নেই।

স্বাধীনতার পর হিন্দু ধর্মের মেয়ে বীরাঙ্গনা কানন বালাকে বিয়ে করেন মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেন শেখ। কানন বালা এখন নাজমা বেগম। তাকে বিয়ে করার অপরাধে পরিবার-গ্রাম ছাড়তে হয়েছে এই মুক্তিযোদ্ধাকে। আজ টাকার অভাবে স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে পারছেন না। নাজমা বেগমের জীবন সংঙ্কটাপন্ন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেন শেখ বলেন, আমি হাসপাতালে বিল দিতে পারিনি। কোথা থেকে দেবো? আমার কাছে কোন টাকা পয়সা নেই। ১৯৭১ সাল থেকে ভাসতে আছি, এখনো ভাসছি।

মুক্তিযুদ্ধে বুলেটের আঘাত এখনো রয়েছে শরীরে, নিজেও জীবন সায়াহ্নে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত। তবুও স্ত্রীর চিকিৎসায় বার বার ঘুরেছেন বিভিন্ন হাসপাতালে। কিন্তু অর্থ সঙ্কটে এখন তিনি রাস্তায়।

তিনি আরও বলেন, শুধু সম্মানী ভাতাটুকু পাই। আর কোন কিছু আজ পর্যন্ত পাই না। ভিটেমাটি পাওয়ার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি; কাজ হয়নি।

রাজধানীর ধানমন্ডি কিডনি এবং জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ-তে থাকা এই বীরাঙ্গনা ভুগছেন কিডনিসহ বিভিন্ন জটিল রোগে। ডাক্তাররা বলছেন, এই মুহূর্তে তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন।

ধানমন্ডি কিডনি এবং জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ডা. ইউছুফ হোসাইন নূর বলেন, যেহেতু তিনি একজন বীরাঙ্গনা, সেজন্য আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে।

গোপালগঞ্জ থেকে আসা এই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের আশ্রয় হয় মিরপুরের ১০নং বস্তিতে। মুক্তিযোদ্ধা এই পরিবারের চাওয়া, সরকার তাদের আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে আসবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত